অভ্যন্তরীণ বিশৃঙ্খলায় সাংগঠনিক শক্তি হারাচ্ছে বিএনপি, শঙ্কিত তৃণমূল!

অভ্যন্তরীণ বিশৃঙ্খলায় সাংগঠনিক শক্তি হারাচ্ছে বিএনপি, শঙ্কিত তৃণমূল!

নিউজ ডেস্ক: বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের বেয়াদবি, সমন্বয়হীনতা ও বিশৃঙ্খলার জন্য দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন তরান্বিত করা সম্ভব হচ্ছে না। সিনিয়র-জুনিয়র নেতাদের মাঝে বড় ধরণের রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকায় বিএনপি রাজপথে প্রতিরোধ গড়ে তোলার পরিবর্তে বিভক্তিতে জড়িয়ে পড়ছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

বিএনপির রাজনৈতিক অস্থিরতা ও অসামঞ্জস্যপূর্ণ রাজনীতির জন্য অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে দায়ী মানে করছেন তৃণমূলের নেতারা। তৃণমূলের এমন বক্তব্যের সঙ্গে একমত রাজনৈতিক বিশ্লেষকরাও। এ বিষয়ে বিশিষ্ট রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ড. এমাজউদ্দীন আহমেদ বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরেই বিএনপির রাজনীতিতে কোনো শৃঙ্খলা দেখা যাচ্ছে না। সিনিয়র-জুনিয়র নেতাদের মাঝে সমন্বয়হীনতা খেয়াল করেছি আমি। হাইকমান্ডের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করার জন্য দ্বিতীয় ও তৃতীয় সারির নেতাদের মধ্যে একধরণের অনীহা দেখা গেছে। হাইকমান্ড বারবার রাজপথে নামতে নির্দেশ দিলেও তা কাজে আসছে না। মামলা-হামলা, জেল-জরিমানার ভয়ে তটস্থ হয়ে পড়েছেন দলটির নেতৃবৃন্দ। তাই আন্দোলনে ডাক দিয়েও সফল হচ্ছে না দল।

তিনি আরো বলেন, একটি রাজনৈতিক দলে বিশৃঙ্খলা বিরাজ করলে সেটি লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না। বিএনপির অভ্যন্তরেও সেটিই স্পষ্ট হচ্ছে এখন। কেন্দ্রের বিভিন্ন সভা-সমাবেশে দেখা গেছে, সামনের সারিতে বসা, স্লোগান দেয়া এমনকি পছন্দের নেতাদের বক্তব্য দেয়াকে কেন্দ্র করে প্রায়শই দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন বিএনপির নেতা-কর্মীরা। তার মানে, নেতা-কর্মীদের উপর কেন্দ্রের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। এই অবস্থা চলতে থাকলে বিএনপিকে রাজনৈতিক গন্তব্যে পৌছাতে যথেষ্ট বেগ পেতে হতে পারে।

বিএনপিপন্থী আরেক বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুীরও একই অভিমত পোষণ করেছেন বিএনপির বিশৃঙ্খল রাজনীতি নিয়ে। তিনি বলেন, সত্যি বলতে, দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকার কারণে নিয়মিত রাজনীতি চর্চা করেন না বিএনপির নেতা-কর্মীরা। যার কারণে রাজনৈতিক শিষ্টাচার ও ভদ্রতা ভুলতে বসেছেন তারা। তবে বিএনপিতে যে সমস্যাটি প্রকট রূপ ধারণ করেছে তা হলো- দলটির চেইন অব কমান্ড ভেঙে পড়েছে।

তিনি আরো বলেন, অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা ধরে রাখতে না পারার করণে বিএনপি শক্তিশালী রূপ ধারণ করে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে প্রতিরোধ করতে পারছে না। অচিরেই এসব সমস্যার সমাধান না করতে পারলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা বিএনপির পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়বে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *