আগামী বছর শুরুতে আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ শেষ

আগামী বছর শুরুতে আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ শেষ

তাজা খবর:

ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেছেন, আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে কাজে কিছুটা দেরি হচ্ছে। তাছাড়া কিছু আর্থিক সমস্যাও রয়েছে। ভারতের অংশের কাজ এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশ অংশে কিছু কাজ বাকি আছে। আশা করা যায়, আগামী বছরের শুরুতে রেলপথ নির্মাণ শেষ হয়ে যাবে।

গতকাল দুপুরে আখাউড়া আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে যাওয়ার পথে সীমান্তের শূন্য রেখায় সাংবাদিকদের সঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন। বিক্রম দোরাইস্বামী দুই দিনের সফরে ভারতের আসাম যাবেন বলে সাংবাদিকদের জানান। এর আগে তিনি সড়কপথে ঢাকা থেকে বেলা ১টায় আখাউড়া স্থলবন্দরে এসে পৌঁছেন। এ সময় তাকে স্বাগত জানান আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কসবা সার্কেল) নাজমুল হাসান, আখাউড়া থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান, ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ মো. আবদুল হামিদ প্রমুখ। হাইকমিশনার আরও বলেন, সড়কপথ ভালো করা, রেলপথ মজবুত করা এবং নৌপথ ব্যবহারের জন্য দুই দেশের মধ্যে কাজ চলছে। এসব কাজ শেষ হলে দুই দেশই উপকৃত হবে। এটা আমাদের দুই দেশের বন্ধুত্বের জন্যও ভালো হবে। তিনি বলেন, গত চার মাসে ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্য বেড়েছে। রেলের মাধ্যমে মালামাল আনা-নেওয়া চলছে। ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে বেনাপোল, পেট্টাপোলের মতো এ বন্দরের সুবিধা আরও বৃদ্ধি করা হবে। ভারতের ভ্যাকসিন সরবরাহ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমানে ভারতে ভ্যাকসিন উৎপাদন বেড়েছে। ভারত থেকে বাংলাদেশে অক্সিজেন ও অক্সিজেন সরঞ্জাম সরবরাহ করা হচ্ছে। আশা করছি, দ্রুত ভ্যাকসিনও সরবরাহ করা যাবে। ট্যুরিস্ট ভিসা কবে নাগাদ চালু হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা করোনা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে। বর্তমানে ট্যুরিস্ট ভিসা ছাড়া সব ধরনের ভিসা চালু আছে। দুই দেশের মধ্যে বিমান চলাচলও শুরু হয়েছে। কভিড পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলে দুই দেশের যাত্রীদের সুবিধা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *