আদর্শবিহীন রাজনীতি টিকে থাকতে পারে না: প্রধানমন্ত্রী

আদর্শবিহীন রাজনীতি টিকে থাকতে পারে না: প্রধানমন্ত্রী

তাজা খবর:

যুবলীগের নেতাকর্মীদের জাতির পিতার আদর্শ বুকে ধারণ করে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে রাজনীতি করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আদর্শবিহীন রাজনীতি টিকে থাকতে পারে না।

বুধবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুবলীগের নেতাকর্মীদের বলবো যে, জাতির পিতার আদর্শ যদি কেউ বুকে ধারণ করে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে মানুষের কল্যাণের কথা চিন্তা করে রাজনীতি করে তাহলে সে রাজনীতি টিকে থাকে। কিন্তু যারা রাজনীতি করতে গিয়ে লোভের বশবর্তী হয়, অর্থ-সম্পদ যাদের কাছে বড় হয়ে যায়, তারা কিন্তু বেশিদিন টিকতে পারে না, এটা বাস্তবতা।

তিনি বলেন, সংগঠনকে শক্তিশালী করে আদর্শ ভিত্তিক সংগঠন হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। সবসময় মনে রাখতে হবে, আমাদের রাজনীতি যাতে দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য হয়, কারণ সেটিই সঠিক রাজনীতি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাজনীতি করতে এসে যারা ভাগ্য তৈরি করতে লেগে পড়ে তারা কিছু টাকা পয়সা করতে পারলেও পরে তাদের আর কোনো অস্তিত্ব থাকে না- এটাই প্রমাণিত সত্য।

তিনি বলেন, ’৭৫ পরবর্তী ক্ষমতা দখলকারীরা ক্ষমতাকে ভোগের বস্তু হিসেবে নেয়াতে মুষ্টিমেয় কিছু লোকের ভাগ্যের বদল করতে পারলেও দেশ ও জনগণের কোনো কল্যাণ বয়ে আনতে পারেনি। তাই, আজকে জনগণের কাছে তাদের কোনো স্থান নেই, এই স্থান আসলে থাকে না।

এই উপমহাদেশের প্রাচীনতম সংগঠন আওয়ামী লীগ জাতির পিতার আদর্শ নিয়ে চলাতেই আজ পর্যন্ত টিকে রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যুবলীগকে আমি বলবো; জাতির পিতার সেই আদর্শকে বুকে নিয়েই সংগঠন করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বিএনপি’র রাজনৈতিক লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য প্রসঙ্গে বলেন, ২ হাজার কোটি টাকা থাকলে কেউ কোনোদিন তাদের ক্ষমতা থেকে সরাতে পারবে না বলে তারা ভেবেছিল। কিন্তু তাদেরকেও সরে যেতে হয়েছে। খালেদা জিয়া বড়াই করে আমার কথাই বলেছিলেন- শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীতো দূরের কথা কোনোদিন বিরোধী দলের নেতাও হতে পারবেন না। তার কথাটি তার বেলাতেই ফলে গেছে। হাজার হাজার কোটি টাকা তার ছেলেকে (তারেক রহমান) দিয়ে বানিয়েও কিছু করতে পারেননি। একইভাবে আওয়ামী লীগ ১০০ বছরেও ক্ষমতায় আসতে পারবে না- এটাও তার (খালেদা জিয়া) ঘোষণা ছিল। আল্লাহর রহমতে শত্রুর মুখে ছাই দিয়ে আওয়ামী লীগ প্রথমবার ৫ বছর, এরপরে টানা ১২ বছর ক্ষমতায় আছে বলেই জনগণের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি।

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বার বার ভোটে নির্বাচিত করায় জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা পুনর্ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, যুবলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে সামস পরশ, সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলসহ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *