আমাদের ভবিষ্যৎ নিয়ন্ত্রণ করবে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স : শিক্ষামন্ত্রী

আমাদের ভবিষ্যৎ নিয়ন্ত্রণ করবে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স : শিক্ষামন্ত্রী

তাজা খবর:

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আমাদের ভবিষ্যৎ নিয়ন্ত্রণ করবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স। তাই আগামী শিক্ষা ব্যবস্থায় তথ্য প্রযুক্তিকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী আজ ফ্রান্সের প্যারিসে ইউনেস্কো হেডকোয়ার্টারে ৪১ তম জেনারেল কনফারেন্সে ‘ ফিউচার অভ এডুকেশন’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনের উপর প্যানেল আলোচনায় অংশ নিয়ে একথা বলেন।

উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশের মধ্যে তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার বৈষম্যের কথা উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনেক উন্নয়নশীল দেশ তথ্যপ্রযুক্তির ব্যাপক পরিবর্তনের সাথে সমান তালে চলতে পারছে না। ফলে ডিজিটাল গ্যাপ তৈরি হচ্ছে। তাই উন্নয়নশীল দেশসমূহের ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নে ব্যাপক প্রযুক্তিগত সাপোর্ট প্রয়োজন।

ভবিষ্যতের শিক্ষা ব্যাবস্থার রূপরেখা তুলে ধরে শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, বিশ্বের লাখ লাখ মানুষের মৌলিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে যদিও ইউনেস্কো ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছে তারপরও মানব সভ্যতা বিশ্ব শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে আরো এগিয়ে যাবে। সঠিক শিক্ষাই তা নিশ্চিত করতে পারবে।

আগামীর শিক্ষা ব্যবস্থা আমাদের পরবর্তী প্রজন্মকে ভালো মানুষ এবং দায়িত্বশীল বিশ্ব নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

প্যানেল আলোচনা আরো অংশ গ্রহণ করেন কিউবার শিক্ষা মন্ত্রী মিস এনা এলসা বেলাযকুয কবিইলা, স্লোভেনিয়ার শিক্ষা মন্ত্রী সিমন কুসটেক প্রমুখ।

ইউনেস্কো ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে জাতি সংঘের সাধারণ অধিবেশনে ফিউচার অব এডুকেশন ইনিশিয়েটিভ কার্যক্রম শুরু করে। এই জন্যে ইথিওপীয়ার প্রেসিডেন্ট শালে ওয়ার্ক যিউডি কে চেয়ারম্যান করে একটি কমিশন গঠন করা হয়। কমিটি দুই বছরে ১৯ টি বড় মিটিং করে ফিউচার অভ এডুকেশন রিপোর্ট প্রস্তুত করে।

উল্লেখ্য, গতকাল প্যারিসে ইউনেস্কোর ৪১ তম জেনারেল কনফারেন্সে শুরু হয়েছে। বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশনের চেয়ারপারসন শিক্ষা মন্ত্রী ডা.দীপু মনি ইউনেস্কোর ৪১ তম জেনারেল কনফারেন্সে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *