উত্তরে তাবিথ, দক্ষিণে ইশরাক-পরীক্ষিতরা অবমূল্যায়িত হওয়ায় বিএনপিতে চাপা ক্ষোভ!

উত্তরে তাবিথ, দক্ষিণে ইশরাক-পরীক্ষিতরা অবমূল্যায়িত হওয়ায় বিএনপিতে চাপা ক্ষোভ!

নিউজ ডেস্ক :

আন্দোলনের অংশ হিসেবে ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তাবিথ আউয়াল এবং দক্ষিণে ইশরাক হোসেনকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম স্কাইপিতে এসে দলীয় প্রার্থীদের চূড়ান্ত মনোনয়ন ঘোষণা করেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

তবে রাজধানী ঢাকার মতো গুরুত্বপূর্ণ দুই সিটিতে তুলনামূলকভাবে তরুণ ও মাঠের রাজনীতিতে অপরিপক্ব নেতাদের মনোনয়ন দিয়ে বিএনপির হাইকমান্ড চরম ভুল করছে বলেও নানা গুঞ্জন দলের অভ্যন্তরে ছড়িয়ে পড়েছে। জানা গেছে, তারেক রহমানের তরুণ নির্ভর নির্বাচনী চ্যালেঞ্জের কারণে বিএনপি ঢাকার দুই সিটি নিয়ে রীতিমতো জুয়া খেলছে বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করছেন নেতারা। দুই তরুণ যদি সিটি নির্বাচনে জয়ী হয়ে বিএনপির পতাকা উত্তোলন করতে ব্যর্থ হন তবে রাজধানীতে বিএনপির রাজনীতির এক ধরণের কবর রচিত হতে পারে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন দলটির নীতি-নির্ধারক পর্যায়ের একাধিক নেতা।

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেনের মতো নব্য তরুণ ও মাঠের রাজনীতিতে তুলনামূলক অজনপ্রিয় নেতাদের মনোনয়ন দেয়াকে সুচিন্তিত মতামত বলে মানতে নারাজ বিএনপির স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্য। পরিচয় গোপন রাখার শর্তে দলটির স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্যের মতে, রাজধানী ঢাকাকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে দুই সিটির নির্বাচনে জয়ের বিকল্প নেই। কিন্তু দুই তরুণকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে বিএনপির হাইকমান্ড সিনিয়র ও পরীক্ষিত একাধিক প্রার্থীর সাথে এক ধরণের ঠাট্টা করলো। দক্ষিণ সিটিতে মির্জা আব্বাস, হাবিব উন-নবী-খান সোহেলদের বাদ দিয়ে ইশরাক হোসেনের মতো সদ্য বিদেশ ফেরত নেতাকে মনোনয়ন দেয়ার বিষয়টি নিয়ে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে নেতাদের মনে। তবে শঙ্কা বিষয় হলো দুই সিটিতে যদি সঠিক প্রার্থী বাছাইয়ের দরুন বিএনপির পরাজয় ঘটে তবে রাজধানীতে বিএনপির রাজনৈতিক অবস্থান দুর্বল হয়ে পড়বে। ফলে পরবর্তীতে দাবি আদায়ের কোন আন্দোলনে রাজনীতি থেকে বিএনপি নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হবে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করছেন দলটির বিভিন্ন সারির নেতারা। তবে এবারও ঘুরেফিরে বিপুল অঙ্কের উৎকোচ ও উপহার লন্ডনে পাঠিয়ে মনোনয়ন বাগিয়ে নেয়ার মতো সমালোচনাও পিছু ছাড়ছে না বিএনপির।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *