ঋতু বদলায় দিন  নাবদলায়

ঋতু বদলায় দিন  নাবদলায়

-পিএম. জাহিদ

কৃষাণ আর কৃষাণীর ছবি আকেঁ এসএম সুলতান
সুঠাম পেশী বহুল কৃষাণ আর কৃষাণীর মুখ
সে ছবি পটে রয়ে গেল চিরকাল
বাংলার কৃষক জীর্ণ-শীর্ণ ভুখা-নাঙ্গা কাঙ্গাল-
আজো, অবিকল যেন আমার মায়ের মুখ
আর এ অধম চাষার ছেলের যা হাল-
যা দিনকাল, পৃথিবীর উষ্মতা বেড়েই চলেছে
বৃষ্টি হয়না কতকাল
শুকিয়ে গেল জমির উর্বরতা
একটু বৃষ্টি দরকার।
বৃষ্টি চাই, শুধু বৃষ্টি চাই
এক ঝলকা বৃষ্টি চাই জমির উর্বতা ফিরাতে
তাই তাকিয়ে ছিলাম বর্ষা ঋতুর দিকে।
বর্ষাকালে বন্যা আসে, বৃষ্টি আসে,
বয়ে আনে জমির প্রাণ পলিমাটি
ইতিপূর্বেও দেখেছি একবার।
তাই তাকিয়েছিলাম বর্ষার প্রাণে-
আমি কৃষকের ছেলে চাষার বংশ-
জমি উর্বরতা হারালে হারাবো জীবন
তাই বৃষ্টি চাই, হ্যাঁ হ্যাঁ বৃষ্টি চাই, বর্ষা চাই।
অবশেষে বৃষ্টি এলো মুশলধারে বৃষ্টি এলো
বন্যা এলো, নারগিস এলো, ফণী এলো
হারিয়ে গেল কৃষকের জমি
মুছে গেল চাষার ছেলের স্বপ্ন
পৈতৃক জমি এখন মারিয়ানা ট্রেঞ্চ
না না, তার চেয়েও অতল গহ্বরে
চাষার ছেলে কাঁদছে বসে
তলহীন সেই জমির ধারে
ঋতু বদল আর হয়না বুঝি
চাষার ছেলের এ সংসারে
যেমন করে কাঁদে কৃষক
চিরকাল এ বাংলার ঘরে…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *