এখন গ্রামের মানুষ শহরমুখী হচ্ছে : গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী

এখন গ্রামের মানুষ শহরমুখী হচ্ছে : গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী

তাজা খবর:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের ৪ নম্বর সেক্টরে তিনটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে যুদ্ধের মাধ্যমে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। দেশ স্বাধীনের পর স্বাধীনতাবিরোধীরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করে। তবে জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের বাইরে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান। এখন বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে এবং দেশের মানুষের কল্যাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

শরীফ আহমেদ বলেন, এখন এলাকায় শিল্পায়ন ও পরিকল্পিত শহর হওয়ার কারণে গ্রামের মানুষ শহরমুখী হচ্ছে। মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়েছে। বর্তমানে দেশের জনসংখ্যা প্রায় ১৬ কোটি। এই ১৬ কোটি মানুষের বাসস্থান ও খাদ্য নিশ্চিত করছে শেখ হাসিনার সরকার। পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প, পদ্মা সেতু, মেট্রো রেল ও শিল্প কারখানা বৃদ্ধিসহ নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তাই প্রমাণ করে।

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যান এবিএম আমিন উল্লাহ নুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব শহীদ উল্লা খন্দকার, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানা আফরোজ, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম খাঁন, নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মাহফুজুর রহমান, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ নুসরাত জাহান, রূপগঞ্জ থানার ওসি এএফএম সায়েদ প্রমুখ।

পরে পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের ৪ নম্বর সেক্টরে পানি সরবরাহ পিপিপি প্রকল্প, ৩ নম্বর সেক্টরে ৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রগতি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ তলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট দোতলা ভবন নির্মাণ ও ৩০ নম্বর সেক্টরে ৫ কোটি ৪৮ লাখ টাকা ব্যয়ে পলখান উচ্চ বিদ্যালয় এবং পূর্বাচল আদর্শ কলেজের ৬ তলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট দোতলা ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *