এবার ‘লকডাউনে’ হার্ডলাইনে যাবে পুলিশ

এবার ‘লকডাউনে’ হার্ডলাইনে যাবে পুলিশ

তাজা খবর:

১৪ এপ্রিল (বুধবার) থেকে শুরু হতে যাওয়া ‘লকডাউনে’ হার্ডলাইনে যাবে পুলিশ। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘরের বাইরে আসতে দেওয়া হবে না। যেকোনো মূল্যে ঘরে থাকতে বাধ্য করবে পুলিশ।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) সূত্র জানায়, সরকারের পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হলেও লকডাউনের আওতাগুলো এখনো বর্ণনা করা হয়নি। নির্দেশনা পাওয়ার পর সেগুলো কার্যকরে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে পুলিশ।

ডিএমপির একজন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, সরকার ঘোষিত (চলমান) কঠোর নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পুলিশ মূলত সচেতনতা সৃষ্টি ও মাস্ক বিতরণের কাজ করেছে। এছাড়াও যারা অকারণে যানবাহন নিয়ে ঘুরাঘুরি করেছে তাদের ট্রাফিক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে। তবে পরবর্তী লকডাউন বাস্তবায়নে পুলিশ আগের চেয়ে আরও বেশি সক্রিয় ও কঠোর থাকবে। যারা ঠুনকো অজুহাতে বাড়ির বাইরে বের হবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পুলিশ জানায়, সড়কপথ-নৌপথে অবস্থানসহ রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাসহ বিনোদনকেন্দ্র ও পার্কে যেন কেউ জড়ো হতে না পারে সেক্ষেত্রে নজরদারি করা হবে। ঢাকার ভেতরে ও বিভিন্ন প্রবেশপথে পুলিশ চেক করবে। এছাড়াও ঢাকার ভেতরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টেগুলোতে চেকপোস্ট বসানো হবে। সড়কে চলাফেরা করা ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। কারণ সন্তোষজনক না হলে পুলিশ তাদের বাসায় পাঠাবে।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম বলেন, ২০২০ সাল থেকেই করোনা প্রতিরোধে পুলিশ মাঠে আছে। পুলিশ সচেতনতা বাড়াতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে। ১৪ এপ্রিলের লকডাউনে যেসব নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে বলা হবে, পুলিশ সেগুলো বাস্তবায়ন করবে।

এদিকে লকডাউনের সরকারি নির্দেশনা মানাতে র‍্যাবও মাঠে থাকবে। র‍্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (এএসপি) ইমরান খান বলেন, দেশে সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা করা হলে র‍্যাব মাঠে থাকবে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবে। লকডাউনকে কেন্দ্র করে যাতে অসাধু ব্যবসায়ীরা দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করতে না পারে সেজন্য র‍্যাবের অভিযান চলবে।

তিনি বলেন, জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। এতে কাজ না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে বাধ্য করা হবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ৫ এপ্রিল থেকে সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন থেকেই সবার মধ্যে ঢিলেঢালা ভাব দেখা যায়। নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই গণপরিবহন ও শপিংমল খুলে দেওয়া হয়। পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। এ কারণে ১৪ এপ্রিল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনের ঘোষণা দেয় সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *