কোরবানির ঈদে চাহিদার চেয়ে আড়াই লাখ গরু-খাসি উদ্বৃত্ত

কোরবানির ঈদে চাহিদার চেয়ে আড়াই লাখ গরু-খাসি উদ্বৃত্ত

তাজা খবর:

রংপুর বিভাগে আসন্ন কোরবানি ঈদে চাহিদা মিটিয়ে আড়াই লাখের বেশি পশু উদ্বৃত্ত থাকবে। উদ্বৃত্ত এসব পশু দেশের অন্যান্য স্থানের চাহিদা মিটাতে পারবে। এ বছর কোরবানি যোগ্য গরু-খাসি রয়েছে প্রায় ১৩ লাখের ওপর। ভারত থেকে গরু না এলে এবার এই বিভাগের খামারিরা লাভবান হবেন। ভালো দামের আশায় খামারিরা কোরবানির বাজার ধরার জন্য এসব পশু যত্ন সহকারে লালন পালন করছেন। রংপুর বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা গেছে, কোরবানির পশু বিক্রির উদ্দেশ্যে এই বিভাগের আট জেলায় দেড় লাখের বেশি খামারি সাড়ে ৪ লাখের বেশি গরু বাণিজ্যিকভাবে বিক্রির জন্য প্রস্তুত করেছেন। এছাড়া ২ লাখের ওপর গৃহস্থ প্রায় ৯ লাখ গরু-খাসি বাজারে বিক্রি করার জন্য তৈরি করেছেন। এর মধ্যে রংপুর জেলায় সবচেয়ে বেশি প্রায় ৩৩ হাজার খামারে প্রায় ২ লাখের ওপর গরু রয়েছে। প্রাণিসম্পদ বিভাগের তথ্য মতে রংপুর বিভাগের আট জেলায় গত বছর পশু কোরবানি হয়েছে ১০ লাখের কিছু ওপরে। এ বছর এই বিভাগে কোরবানির উপযুক্ত গরু খসি প্রস্তুত রয়েছে প্রায় ১৩ লাখ। এর মধ্যে ছাগল ও ভেড়া রয়েছে প্রায় আড়াই লাখ। এসব পশু এই বিভাগের চাহিদা মিটিয়ে দেশের অন্যান্যস্থানে সরবরাহ করা হবে। কোরবানিতে দেশি জাতের ও শংকর জাতের গরু চাহিদা বেশি থাকায় খামারিরা এ ধরনের গরু স্বাস্থ্য সম্মতভাবে মোটাতাজাকরণ শুরু করেছেন কয়েক মাস আগে থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *