‘কোরবানির পশুর হাটে একসঙ্গে ২ জনের বেশি নয়’

‘কোরবানির পশুর হাটে একসঙ্গে ২ জনের বেশি নয়’

তাজা খবর:

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে লোক সমাগম এড়াতে কোরবানির পশুর হাটে কঠোর নজরদারি রাখা হচ্ছে। প্রতিটি হাটের তিন দিকে তিনটি গেট রাখা হবে। সর্বোচ্চ দুজনের বেশি হাটে প্রবেশ করতে পারবেন না। এছাড়া দর কষাকষি করে সময় নষ্ট না করার মতো বিষয়গুলোও গুরুত্ব দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

রোববার (১১ জুলাই) গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপে এসব কথা বলেন তিনি।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘একদিকে ঈদ ঘনিয়ে আসছে, অন্যদিকে কোরবানির হাট শুরু। এই দুই বিষয়কে আমরা কীভাবে ব্যবস্থাপনা করলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারব সেদিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।’

ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘সবকিছু যাতে সুশৃঙ্খল ও সুরক্ষিতভাবে করা যায় সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকে হাটগুলোতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। হাটগুলো নিরাপদ স্থানে হতে হবে এবং তিনটি গেট থাকবে। একদিক দিয়ে ক্রেতারা ঢুকবে আরেক গেট দিয়ে গরু কিনে বের হয়ে যাবে। আরেকটি থাকবে পশু প্রবেশ করানোর জন্য।’

তিনি বলেন, ‘স্বেচ্ছাসেবক দল, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং হাট কর্তৃপক্ষ সমন্বয়ে কাজ করবে। হাটে একা আসাকে আমরা উৎসাহিত করছি। কিন্তু সর্বোচ্চ দুজনের বেশি অ্যালাউ করা যাবে না। ক্রেতাদের মাথায় রাখতে হবে, যেভাবে সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে তাতে তিনি বা তারা যেকোনো সময় সংক্রমিত হতে পারেন। আমরা চাই অতিরিক্ত মানুষ যাতে হাটে না আসে এবং যারা আসবে তারা যেন দ্রুত গরু কিনে বেরিয়ে যায়। গতবছর যেমন ২৫% ডিজিটাল হাট করতে পেরেছি, এবারও অনলাইনে হাট জনপ্রিয় করার দিকে জোর দিচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডিজিটাল মার্কেটে ক্রেতাদের নিয়ে যেতে ওয়েবসাইটগুলোকে সহজ করেছি। যাতে গরুর ওজন এবং মূল্য সঠিক থাকে এবং ন্যায্য দামে কিনতে পারে সেজন্য বিক্রেতাদের বলা হয়েছে। অন্যদিকে যারা হাটে গরু কিনতে যাবেন তাদের ক্ষেত্রেও এই নির্দেশনা যে, ন্যায্যমূল্য নির্ধারণ করতে হবে। যাতে ক্রেতাদের দরকষাকষি করতে না হয়। যাতে পশু কিনে দ্রুত বেরিয়ে যেতে পারেন।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এটাও আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ যে, কোরবানির পশুর হাট কীভাবে সুশৃঙ্খল ও সুরক্ষিত রেখে করা যায়। কারণ আমরা দেখেছি, লোক সমাগম কমানো গেলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব। এখন হাট মানে লোক সমাগম হবে। সেই দিকটা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *