চালের দাম কমানোর নির্দেশ

চার দিনের মধ্যে চালের দাম কমানোর নির্দেশ

তাজা খবর:

চালের চড়া দামে হিমশিম ক্রেতারা। তাই চার দিনের মধ্যে যে কোনো মূল্যে চালের দাম কমাতে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধনচন্দ্র মজুমদার। দাম কমিয়ে আগের দামে না আনলে মজুদকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রয়োজনে চাল আমদানি করা হবে বলেও জানান।

গতকাল বিকালে খাদ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে ধান-চাল বাজারমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধকল্পে ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ভরা মৌসুমে দাম বাড়ার কারণ নেই। লাইসেন্স ছাড়া ধান-চাল

মজুদকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না। আটটি বিভাগে বৃহস্পতিবার (আজ) থেকে একযোগে অভিযান চলবে। চাল সরবরাহে কোনো ঘাটতি নেই জানিয়ে সাধনচন্দ্র মজুমদার বলেন, নতুন মজুদ আইন হয়েছে। জোরপূর্বক প্রয়োগ করতে চাই না। ব্যবসায়ীরা সরকারের প্রতিপক্ষ নন।

মতবিনিময় সভায় আড়তদারদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ব্যবসায়িক সূত্র বা ইকোনমিক্স থিওরিতে বলে- যখন চাহিদা বেশি হয় তখন দাম বাড়ে, সরবরাহ কমে গেলে দাম বাড়ে। আমি তো এ মুহূর্তে সরবরাহ কমার কোনো অবস্থা দেখছি না। প্রচুর ধান আছে। সরবরাহ যাতে না কমে যায় তার জন্য আমরা ইতোমধ্যে ট্যাক্স ফ্রি করে দিয়ে আমদানি করার চেষ্টা করছি। মতবিনিময় সভায় খাদ্যমন্ত্রী বলেন, অনেকের অনেক টাকা আছে কিন্তু মারা যাওয়ার পর তো কবরে সাড়ে ৩ হাত কাফনের কাপড় নিয়ে যাবেন। আর কিছু নিয়ে যাবেন কি? যদি আপনাদের বিবেক না থাকে, ধমক দিয়ে কিছু হবে না। নিজেদের মধ্যে বিবেক থাকতে হবে, সততা থাকতে হবে। খাদ্যমন্ত্রী বলেন, চার দিনে লাফিয়ে লাফিয়ে যেমন দাম তুলেছেন তেমন চার দিনে আবার সে রকম করে দামটা আগের স্থানে নিয়ে আসবেন। এ সময় ব্যবসায়ীরা মন্ত্রীর সঙ্গে একমত পোষণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *