ঢাকায় আজ তথ্যপ্রযুক্তির আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

ঢাকায় আজ তথ্যপ্রযুক্তির আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

তাজা খবর:

ঢাকায় আজ বৃহস্পতিবার উদ্বোধন হচ্ছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির বিশ্ব সম্মেলন ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজির (ডব্লিউসিআইটি) ২৫তম আসর। রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ভার্চুয়ালি এর উদ্বোধন করবেন। ‘আইসিটি দ্য গ্রেট ইকুয়ালাইজার’ স্লোগানে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) তথ্যপ্রযুক্তির অলিম্পিক হিসেবে খ্যাত এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। পাশাপাশি বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকে অনলাইনেও এ সম্মেলনে যুক্ত হওয়া যাবে।

‘ডব্লিউসিআইটি ২০২১’ সম্মেলনের পাশাপাশি একই সময়কালে অনুষ্ঠিত হবে এশিয়া এবং ওশেনিয়া অঞ্চলের আন্তর্জাতিক সম্মেলন অ্যাসোসিও ‘ডিজিটাল সামিট ২০২১’।

গতকাল বুধবার রাজধানীর আইসিটি ডিভিশনে সংবাদ সম্মেলনে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ অনুষ্ঠানের বিস্তারিত তুলে ধরেন। তিনি বলেন, চার দিনব্যাপী এ সম্মেলনে থাকছে মোট ৩০টি সেমিনার, মিনিস্টারিয়াল কনফারেন্স, বিটুবি সেশন। অনলাইনে নিবন্ধিত হয়ে এই সেমিনারগুলোতে অংশ নেওয়া যাবে। প্রতিদিন সেমিনারের পাশাপাশি থাকছে বিশেষ আয়োজন। সম্মেলনের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের অংশগ্রহণে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে।

গুগল প্লে স্টোর ও আইফোনের অ্যাপ স্টোর থেকে wcit2021 নামে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ইন্সটল করে সম্মেলনে অংশ নেওয়া যাবে। এ ছাড়া www.wcit2021.com.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করে ভার্চুয়ালি সম্মেলন ও প্রদর্শনী ঘুরে আসা যাবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, উদ্বোধনী দিনে মিনিস্টারিয়াল কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন।

সমাপনী দিনে ডব্লিউসিআইটির রজতজয়ন্তী উদযাপিত হবে। সম্মেলনের বিভিন্ন সেমিনারে অংশগ্রহণ করবেন সারা বিশ্বের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিভিন্ন সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা। আধুনিক ইন্টারনেটের অন্যতম জনক ভিন্টন সার্ফ ও রবার্ট কান সেমিনারে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থাকবেন। প্রথমবারের মতো একই প্ল্যাটফর্মে তাদের সঙ্গে যুক্ত হবেন আধুনিক ইন্টারনেটের অন্যতম জননী ড. রাদিয়া পারম্যান ও ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের উদ্ভাবক স্যার টিমোথি বারনার্স লি। ইন্টেল করপোরেশনের চেয়ারম্যান ওমর এস ইশরাক ও নাসার সদর দপ্তরের এজেন্সি বাজেট, স্ট্র্যাটেজি ও পারফরম্যান্সের ডেপুটি সিএফও ডাউগ কমস্টক সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) চিফ স্টাডি গ্রুপস ডিপার্টমেন্টের বিলেল জামৌসিও বক্তৃতা করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বিগত প্রায় ১৩ বছরে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশের যে অর্জন তা এই সম্মেলনের মাধ্যমে বহির্বিশ্বে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ হিসেবে ব্র্যান্ডিং করার সুযোগ তৈরি হয়েছে। আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সফলতা ও অর্জন আমরা তুলে ধরব। এখন ডিজিটাল বাংলাদেশের সঙ্গে উন্নত দেশের সেবার তুলনা করা হয়। ১২ বছর আগে এ তুলনা হতো না। এখানেই আমাদের সফলতা।

দ্য ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস অ্যালায়েন্সের (উইটসা) উদ্যোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) যৌথভাবে এ সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছে। এ আয়োজনের পার্টনার হিসেবে আছে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর, কন্ট্রোলার অব সার্টিফাইং অথরিটিজ (সিসিএ) ও ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সি।

আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনের প্লাটিনাম স্পন্সর ওয়ালটন, গোল্ড স্পন্সর ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক, ব্রোঞ্জ স্পন্সর হুয়াওয়ে, জনতা ব্যাংক, মিনিস্টার টিভি এবং থাকরাল ইনফরমেশন সিস্টেমস। এ ছাড়া ইন্টারনেট পার্টনার আমরা টেকনোলজিস লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক ড. আবদুল মান্নান, বিসিএসের সভাপতি শাহীদ উল মুনীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *