তথ্য ফাঁস: বাংলাদেশ বিরোধী তথ্য সংগ্রহে গয়েশ্বর-সেলিমাকে দিয়ে তারেকের নতুন কমিটি!

তথ্য ফাঁস: বাংলাদেশ বিরোধী তথ্য সংগ্রহে গয়েশ্বর-সেলিমাকে দিয়ে তারেকের নতুন কমিটি!

নিউজ ডেস্ক: দেশের চলমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে তারেক রহমানকে বিশেষ রিপোর্ট দেয়ার নামে ২ সদস্য বিশিষ্ট পকেট কমিটি গঠন করেছে বিএনপি। জানা গেছে, দেশব্যাপী বিভিন্ন ধরণের নির্যাতন ও অনিয়ম-বিষয়ক মনগড়া তথ্য সংগ্রহ করে এই কমিটি বিশেষ একটি মিশন কমপ্লিট করতে বিস্তারিত তথ্য লন্ডনে পাঠাবে।

সূত্র বলছে, সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশবিরোধী মিথ্যাচার ছড়ানো হবে। মূলত বিএনপি-জামায়াতের অর্থায়নে পরিচালিত আন্তর্জাতিক চক্রগুলোকে ব্যবহার করে তারেক ইউরোপীয় ইউনিয়ন, বিভিন্ন দাতা সংস্থা এবং মধ্যপ্রাচ্যের উন্নয়ন সহযোগী রাষ্ট্রগুলোর কাছে বাংলাদেশকে ব্যর্থরাষ্ট্র হিসেবে তুলে ধরতে এমন মিশন হাতে নিয়েছেন তারেক রহমান।

জানা গেছে, স্থায়ী কমিটির দুই সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং বেগম সেলিমা রহমানকে নির্যাতনের ঘটনা পর্যবেক্ষণ এবং নির্যাতিতদের দলের পক্ষ থেকে সহায়তার জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এদিকে গোপন একটি সূত্রের বরাতে জানা গেছে, দুই সদস্যবিশিষ্ট এই কমিটি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সফর করে তথ্য সংগ্রহ করতে পারেন। সাধারণ জনগণের ভোগান্তির নামে মূলত বিএনপি-জামায়াত নেতা-কর্মীদের তথ্য তুলে আনা হবে এই কমিটির মূল উদ্দেশ্য। এরপর সংগৃহীত তথ্য দেশবিরোধী বলে চালাতে পরিশোধন ও পরিমার্জন করে লন্ডনে তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হবে। সেই তথ্য তারেক আরেক দফায় বিশ্লেষণ করে আন্তর্জাতিক লবিস্টদের, বিশেষ করে ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড কার্লাইলের হাতে তুলে দেবেন। পরবর্তীতে বিএনপি-জামায়াতের পেইড লবিস্টরা ইইউ, বিভিন্ন দাতা-সংস্থা, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে বাংলাদেশকে ব্যর্থরাষ্ট্র হিসেবে তুলে ধরতে প্রাণপণ চেষ্টা করবেন। প্রয়োজনে বাংলাদেশের উপর অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ, বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা এমনকি সহায়তা বন্ধ করতেও বিভিন্ন দেশ ও সংস্থাকে নিজেদের মতো করে বোঝাবে বিএনপির লবিস্টরা।

জানা গেছে, বেগম জিয়ার মুক্তি ও নতুন একটি নির্বাচন আদায়ে তারেকের নির্দেশে মূলত গয়েশ্বর ও সেলিমা দু-এক দিনের মধ্যে কাজে নেমে পড়বেন। তবে তারেক রহমানের এই গোপন মিশনের বিষয়টি জানাজানি হয়ে যাওয়ায় কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েছে বিএনপি। বিশেষ এই কমিটির অভ্যন্তরীণ কর্মকাণ্ডের তথ্য কে ফাঁস করলো, সেটি খোঁজার চেষ্টা করছে দলটি।

শেয়ার করুন

No Comments

  1. What Are Outsourced IT Services?
    Redistributed IT administrations are the point at which you
    employ an outside organization to deal with your IT needs.

    An outsider oversaw specialist organization (MSP) can cover everything from the security of systems and the usage of working frameworks to the establishment of programming and the reinforcement of documents.

    Note that re-appropriated IT administrations are not simply break/fix
    administrations. A break/fix specialist comes to you when something is broken, charging an hourly expense to analyze and fix
    the issue. A break/fix administration may appear to be more affordable since
    you possibly pay when you have an issue, yet it’s probably going to be all
    the more exorbitant over the long haul. They have next to zero motivator to work rapidly or cause a
    steady fix since they to get paid more in the event
    that it requires them a long investment or different excursions to fix something.

    In contrast to break/fix benefits, an oversaw IT specialist organization constructs an association with
    your organization, always checking your system for a
    month to month charge. MSPs are there to keep
    your system running easily, not simply to fix issues, so they have increasingly motivator to locate a quick, dependable
    arrangement if something goes off-base. It’s better for you and the specialist
    organization on the off chance that they kill dangers
    and fix issues as they occur. Taking care of an issue the first
    run through methods less work for them and urges you to proceed with your participation. https://www.lgnetworksinc.com/fractional-outsourcing-it-services/

  2. Wοw, amazing weblog strսcture! How lengthy have
    you been blߋgging for? you make blogging glance easy. The full
    look of your site is great, leet alоne the
    content!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *