দারিদ্র্য জয় করেছেন তিস্তাপাড়ের মানুষ

দারিদ্র্য জয় করেছেন তিস্তাপাড়ের মানুষ

ডেস্ক নিউজ:

নদী ভাঙন দমাতে পারেনি তিস্তাপাড়ের সাহসী মানুষদের। জীবনযুদ্ধে হার না মেনে নতুন জীবনের স্বপ্ন বুনছেন তারা। এক সময় তিস্তার গ্রাসে সব হারালেও নদীতে জেগে ওঠা বালুচরের অনেক স্থানে মিষ্টিকুমড়াসহ সবুজ শাকসবজি চাষ করে এখন ভূমিহীন মানুষ তাদের দৈনন্দিন খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার চেষ্টা করছেন। তারা মিষ্টিকুমড়া, ভুট্টা আলুসহ নানা রকমের ফসল ফলিয়ে দারিদ্র্য কাটিয়ে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, নিরন্ন মানুষের ভাগ্য বদলের প্রচেষ্টার আশাব্যঞ্জক চিত্র বালুচরে। এক সময় প্রমত্তা তিস্তার ভাঙনে যাদের বাড়িঘর ভিটেমাটি সুখের সংসার হারিয়ে গিয়েছিল। তাদের অনেকেই বালুচরে ফসল উৎপাদনের চেষ্টা করছেন। অনেকে সার্থকও হয়েছেন। অনেকে বালুচরে আধপাকা বাড়ি করেছেন। চরাঞ্চলে অন্যান্য ফসল ফলানোর পাশাপাশি মিষ্টিকুমড়া চাষ করে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন বুনছে।
বালুচরের যে দিকে চোখ যায়, সে দিকেই শুধু মিষ্টিকুমড়ার খেত। এ যেন সবুজের চাদরে ঢাকা নয়নাভিরাম দৃশ্য। বালুচরে মেশিন বসিয়ে পানি সেচের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বৃক্ষলতাবিহীন চরের মাঝে কৃষকদের ফসল ফলানোর দুঃসাহসী পদক্ষেপ। আর চরাঞ্চলে কৃষি খাতের দিকে সরকারের নতুন দৃষ্টিভঙ্গির ওপর জোর দিচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে ও কৃষি বিভাগের পরামর্শে ভূমিহীন চাষিদের মিষ্টি কুমড়া চাষে গোবর সার, বীজসহ কৃষি উপকরণ প্রদান করেছে।

উপসহকারী কৃষি অফিসার এমমাদাদুল হক জানান, ভূমিহীন মানুষ চরাঞ্চলে অন্যান্য ফসল ফলানোর পাশাপাশি মিষ্টিকুমড়া চাষাবাদ করে দারিদ্র্য জয় করে স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছে।

চরহয়বৎখাঁ গ্রামের ভূমিহীন চাঁন মিয়া (৬১) জানান, তার নিজের ভিটামাটি নেই। তিস্তা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। এখন বাঁধের রাস্তায় ঘর তুলে বসবাস করছেন। ১৩ জনের সংসার তার। অন্যের জমিতে কৃষাণ দিয়েই সংসার চলত তার। এ বছর জেগে ওঠা বালুচরে ২৪ শতাংশ জমিতে মিষ্টিকুমড়ার চারা লাগিয়েছেন। আর মিশিষ্টকুমড়া বিক্রি টাকা দিয়ে আগামী বছর তার সংসার চলবে ভালোভাবেই।

উপজেলা কৃষি অফিসার সাইফুল আলম বলেন, তিস্তা তীরবর্তী গ্রাম ও জেগে ওঠা চরাঞ্চলে পলি বালু দোঁয়াশ মাটিতে অন্যান্য ফসলের মতো কুমড়ার ফলন ভালো হয়। পরিপক্ব পাকা কুমড়া দীর্ঘদিন ঘরে মজুত করে, পরে তা বাজারজাত করা যায়। উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, তিস্তায় জেগে ওঠা বালুচর এখন আর অভিশাপ নয়। নিরন্ন মানুষ তাদের ভাগ্য বদলের প্রচেষ্টার বালুচর হয়ে উঠেছে সবুজের আশীর্বাদ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *