দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক

দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে জোর

তাজা খবর:

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। উগান্ডার কাম্পালায় অনুষ্ঠিত নন-অ্যালাইনড মুভমেন্টের (ন্যাম) ১৯তম শীর্ষ সম্মেলনের সাইডলাইনে শনিবার বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয় বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসাবে ড. হাছান মাহমুদকে তার নতুন ভূমিকায় অভিনন্দন জানিয়েছেন ড. জয়শঙ্কর। এ সময় উভয় নেতা পারস্পরিক স্বার্থের বিভিন্ন বিষয় এবং দুদেশের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার উপায় নিয়ে আলোচনা করেন। এ ছাড়া ড. হাছান মাহমুদের আসন্ন নয়াদিল্লি সফর নিয়েও তারা আলোচনা করেন। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মুহাম্মদ এ মুহিত এবং কেনিয়া ও উগান্ডায় বাংলাদেশের হাইকমিশনারসহ অন্যরা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে এ সফরে রয়েছেন।

বিশ্বের সব বিরোধের শান্তিপূর্ণ নিষ্পত্তির আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর : সম্মেলনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ তার বক্তৃতায় বিশ্বের সব বিরোধের শান্তিপূর্ণ নিষ্পত্তি এবং শান্তির সংস্কৃতিকে সমুন্নত রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন স্থানীয় সময় শনিবার সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। ১৯৭৩ সালে আলজিয়ার্সে ন্যাম শীর্ষ সম্মেলনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া বক্তৃতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর শান্তি, উন্নয়ন ও মানবাধিকারের উত্তরাধিকার সাহসিকতার সঙ্গে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিশ্ব সম্প্রদায়কে ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়ানোর এবং তাদের সমর্থনে সব প্রয়াস গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে ফিলিস্তিনের নির্যাতিত জনগণের প্রতি বাংলাদেশের অটুট সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেন এবং তাদের জন্য ন্যায়বিচার দাবি করেন। পাশাপাশি রোহিঙ্গা সমস্যার টেকসই সমাধান নিশ্চিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে দ্বিগুণ প্রচেষ্টার আহ্বানও জানান। সম্মেলনে তিনি শান্তিপূর্ণ, ন্যায্য এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ গড়তে গঠনমূলক এবং শান্তিপূর্ণ সংলাপের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন।

ন্যাম সম্মেলনের সাইডলাইনে ড. হাছান মাহমুদ মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী থান সুয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন। তারা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন এবং দুই দেশের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ অন্যান্য বিষয় নিয়েও আলোচনা করেন। শুক্রবার ন্যামের নতুন চেয়ারম্যান উগান্ডার প্রেসিডেন্ট ইওয়েরি মুসেভেনি এ শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *