নিজের চাহিদা পূরণ করে বিদেশেও মাছ রপ্তানি করা হচ্ছে

নিজের চাহিদা পূরণ করে বিদেশেও মাছ রপ্তানি করা হচ্ছে

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, মাছ উৎপাদন করে নিজের চাহিদা পূরণ করে বিদেশেও রপ্তানি করা হচ্ছে। জাতীয় জিডিপিতে একটি অংশ আসে মৎস্য সেক্টর থেকে। বিশ্বে ইলিশ মাছের উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান প্রথম এবং সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে ইলিশের উৎপাদন দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

গত শনিবার দুপুরে খুলনার গল্লামারী মৎস্যবীজ উৎপাদন খামার সম্মেলনকক্ষে উপকূলীয় এলাকায় মাছ ও চিংড়ি সম্পদের উন্নয়নে করণীয় বিষয়ক নাগরিক সংলাপে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নিরাপদ ও মানসম্মত চিংড়িসহ সব মাছের উৎপাদন বাড়াতে হবে। বাংলাদেশে চিংড়ি চাষের উপযোগী পরিবেশ রয়েছে। ইতোমধ্যে দেশ-বিদেশে মাছে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে দেশ।

খুলনা মৎস্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় উপ-পরিচালক রণজিৎ কুমার পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মৎস্য পরিদর্শন ও মাননিয়ন্ত্রণ দপ্তরের উপ-পরিচালক প্রীতিষ কুমার মল্লিক। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খুলনার সাসটেইনেবল কোস্টাল অ্যান্ড মেরিন ফিশারিজ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক সরোজ কুমার মিস্ত্রী।

সংলাপে খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও যশোর জেলার জেলা মৎস্য কর্মকর্তা, সিনিয়র সহকারী পরিচালক, সহকারী পরিচালক, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা, মৎস্যচাষি, মৎস্যজীবী, চিংড়িচাষি, আড়তদার, ডিপো মালিক ও বিক্রেতা প্রতিনিধিসহ প্রায় ২০০ জন অংশ নেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *