পরিবেশ রক্ষায় বিশাল অবদান রাখবে সৌর বিদ্যুৎঃ উপমন্ত্রী

পরিবেশ রক্ষায় বিশাল অবদান রাখবে সৌর বিদ্যুৎঃ উপমন্ত্রী

দেশের প্রথম ১৫ মেগাওয়াট ভাসমান সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে বাগেরহাটের মোংলা পোর্ট পৌরসভায়। এজন্য ভারত সরকার মোংলা পোর্ট পৌরসভাকে দিচ্ছে ১৫০ কোটি টাকা। রবিবার দুপুরে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের সম্মেলন কক্ষে মোংলা পোর্ট পৌরসভার সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে ভারতের প্রিমিয়ার সোলার পাওয়ারটেক প্রাইভেট লিমিটেড ও বাংলাদেশের সোলার ইপিসি ডেভলপমেন্ট লিমিটেড।

এ ব্যপারে পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার বলেছেন, ভাসমান ও পুকুরপাড়ে সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপন প্রকল্প পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অনন্য ভূমিকা রাখবে। ভারতের সহযোগিতায় এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে আমাদের মধ্যে মৈত্রীভাব আরো সুদৃঢ় হবে। এ ধরনের প্রকল্প বাংলাদেশে এই প্রথম। এই দৃষ্টান্ত সামনে রেখে ভাসমান সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপন সারা বাংলাদেশে বৃদ্ধি পাবে। গত রবিবার (২৩জুন) সকালে মোংলা পোর্ট পৌরসভার আয়োজনে বন্দর কর্তৃপক্ষের কনফারেন্স হলে ১৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ভাসমান ও পুকুরধার সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনে ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র মো. জুলফিকার আলী। বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় হাইকমিশন অব ইন্ডিয়ার সহকারী হাইকমিশনার রাজেশ কুমার রায়না বলেন, সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপন পরিবেশবান্ধব এবং টেকসই উন্নয়ন প্রকল্প।

নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার এবং উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পরিচালক শেখ রিয়াজ আহমেদ বলেন, ফসিল ফুয়েল ব্যবহার করে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ফলে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে। পরিবেশবান্ধব ভাসমান সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপনের জন্য সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করায় মোংলা পোর্ট পৌরসভার নাম বাংলাদেশের ইতিহাসে বিদ্যুৎ জগতে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *