যানবাহনসহ ফেরি ডুবি

পাটুরিয়ায় যানবাহনসহ ফেরি ডুবি, ৬ জনকে জীবিত উদ্ধার

তাজা খবর:

ঘনকুয়াশায় মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে বাল্কহেডের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে ১৮টি যানবাহন ও যাত্রী নিয়ে রজনীগন্ধা নামে একটি ফেরি ডুবে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, প্রায় কয়েক’শ যাত্রী ছিল ফেরীতে।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পদ্মায় আস্তে আস্তে ফেরিটি ডুবে যেতে থাকে। দুর্ঘটনার পর ছয়জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো নিখোঁজ আছেন ফেরিটিতে থাকা অনেক যাত্রী। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

ফেরি ডুবে যাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-মহাব্যবস্থাপক শাহ মো. খালেদ নেওয়াজ।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানায়, ঘন কুয়াশার কারণে মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) দিনগত রাত ২টা থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজীরহাট ও ধাওয়াপাড়া-নাজিরগঞ্জ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। যা বুধবার সকালেও চালু হয়নি। এমন অবস্থায় পাটুরিরা ৫নং ঘাটের কাছাকাছি অবস্থানে থাকা ফেরি পদ্মা নদীতে ডুবে যায়।

এসময় ফেরিতে ১৮টি যানবাহন ছিল বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় সব যানবাহনের সাথে কয়েক শতাধিক যাত্রীও নদীতে ডুবে যায়। তাদের উদ্ধারে নৌপুলিশ, ফায়ার সার্ভিসে সাথে কাজ শুরু করেছে স্থানীয়রা।

এর আগে, মধ্যরাতে কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে সাময়িক সময়ের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, মধ্যরাত ১টার দিকে পদ্মা নদীতে কুয়াশা পড়তে শুরু করে, ফেরির দিক নির্দেশনা বাতির আলো অস্পষ্ট হয়ে আসায় দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়াতে মাঝ নদীতে যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে ছোট বড় মিলিয়ে ৪টি ফেরি নোঙর করে আছে।

এদিকে দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় উভয় ঘাট এলাকায় কয়েক শতাধিক যানবাহন নৌপথ পারের অপেক্ষায় রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *