পাসপোর্টের ভুল: যেভাবে করবেন সংশোধন

পাসপোর্টের ভুল: যেভাবে করবেন সংশোধন

নতুন পাসপোর্ট হাতে পাওয়ার পরও অনেক সময় সেখানে দেখা যায় সেখানে ঠিকানা বা যেকোনো ভুল থাকতে পারে। অথবা কোনো প্রয়োজনীয় তথ্যের পরিবর্তন করা লাগতে পারে। অনেকেই এই বিষয়টি নিয়ে নানা ভোগান্তিতে পড়তে পারেন। অথবা সঠিক পদ্ধতি না জানার ফলে হতে পারেন হয়রানির শিকার। অথচ খুব সহজেই আপনি এ ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তাহলে চলুন এবার জেনে নিই কীভাবে এই পাসপোর্টের ভুল সংশোধন করবেন।

পাসপোর্টে কোনো ধরনের তথ্য সংশোধন বা পরিবর্তন করতে চাইলে পাসপোর্টটি রি-ইস্যুর জন্য আবেদন করতে হবে।

তবে পুরোনো পাসপোর্টে বিদ্যমান নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম এবং জন্ম তারিখ পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই। বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর চলতি বছর থেকে এই সুবিধা বন্ধ করে দিয়েছে।

কেউ যদি পেশা পরিবর্তন করতে চায়, তাহলে কর্মক্ষেত্রের প্রত্যয়নপত্র দিতে হবে। আর সাথে জমা দিতে হবে প্রাতিষ্ঠানিক পরিচয়পত্রের ফটোকপি। কেউ যদি স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন করতে চায়, এজন্য নতুন করে পুলিশ প্রতিবেদন লাগবে। বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তন বা সংশোধনের ক্ষেত্রে এ ধরনের কোনো নিয়ম নেই।

বৈবাহিক অবস্থা পরিবর্তন করতে হলে আবেদনপত্রের সঙ্গে নিকাহনামা দিতে হবে। এক কপি রি-ইস্যু ফরম ও এক কপি সত্যায়িত নতুন আবেদনপত্র পাসপোর্টের তথ্য সংশোধন বা পরিবর্তন করার জন্য জমা দিতে হবে।

এ ক্ষেত্রে আবেদনপত্র জমার পর জরুরি ভিত্তিতে ৭ দিনে মধ্যে পাসপোর্ট পেতে চাইলে ৬ হাজার ৯শ টাকা ফি জমা দিতে হবে। ২১ দিনে সাধারণ সময়ানুযায়ী পাসপোর্ট পেতে ফি দিতে হবে ৩ হাজার ৪শ ৫০ টাকা।

সোনালী ব্যাংকের পাশাপাশি ওয়ান ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, প্রিমিয়ার ব্যাংক ও ঢাকা ব্যাংকে এই ফি জমা দেওয়া যাবে।

বাংলাদেশের যে কোনো পাসপোর্ট অফিস থেকে পাসপোর্টের তথ্য সংশোধন বা পরিবর্তন করার আবেদন ফরমটি পাওয়া যাবে। এছাড়া অনলাইনে তথ্য সংশোধনের ফরমটি পাওয়া যাবে এই ঠিকানায়। https://bit.ly/2MjFJ8N

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *