বঙ্গবন্ধু ফ্রান্সের ঐতিহাসিক বন্ধু

বঙ্গবন্ধু ফ্রান্সের ঐতিহাসিক বন্ধু

তাজা খবর:

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ফ্রান্সের ঐতিহাসিক বন্ধু হিসেবে অভিহিত করেছেন ওই দেশটির সিনেটর ও ইন্টার পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপ ফর সাউথ ইস্ট এশিয়ার প্রেসিডেন্ট জেকোলিন ডেরোমেডি। গতকাল শনিবার বিকেলে ‘মুজিব চিরন্তন’ অনুষ্ঠানে প্রচারিত ভিডিও বার্তায় তিনি বাংলাদেশের পাশে থাকারও আশ্বাস দেন। সিনেটর জেকোলিন বলেন, বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে উন্নয়নশীল রাষ্ট্র। এখানে চলমান সময়ে অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। প্রতিবছর এ দেশে ২০ লাখ তরুণ চাকরির বাজারে প্রবেশ করে। তাদের দক্ষ জনগোষ্ঠীতে পরিণত করে নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করা সম্ভব।

ফরাসি সিনেটর আরো বলেন, ‘ফ্রান্স বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে কাজ করছে। ২০১২ সাল থেকে ফ্রান্স ডেভেলপমেন্ট এজেন্সি বাংলাদেশে কাজ শুরু করেছে। আমরা বাংলাদেশের উন্নয়নে সহযোগী হয়ে আছি।’ বাংলাদেশ-ফ্রান্স সম্পর্ক আগামী দিনগুলোতে আরো জোরদার হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। এদিকে বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোর জোট ইসলামী সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) মহাসচিব ড. ইউসুফ আল ওথাইমিন গতকাল ‘মুজিব চিরন্তন’ অনুষ্ঠানে ভিডিও বার্তায় বলেন, বঙ্গবন্ধু দ্বিতীয় ওআইসি শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিয়ে বাংলাদেশকে মুসলিম বিশ্বের কাছে পরিচিত করেছিলেন। ওআইসি মহাসচিব বলেন, বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছিলেন। সেই লক্ষ্যে তাঁর কন্যা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করছেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তির সময় বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশের ক্ষমতায়। তিনি সোনার বাংলা গড়ে তুলতে ক্লান্তিহীনভাবে কাজ করছেন।

ওআইসি মহাসচিব আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ ধর্মীয় সম্প্রীতি ও শান্তির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। বাংলাদেশ ও ওআইসির মধ্যে সম্পর্ক এখন আরো দৃঢ়। মুসলিম বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা, উন্নয়নের লক্ষ্যে আমরা একসঙ্গে কাজ করব।’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে গত ১৭ মার্চ শুরু হওয়া ১০ দিনব্যাপী আয়োজনের চতুর্থ দিন ছিল গতকাল। এদিন আলোচক হিসেবে বক্তব্য দেন অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *