বাংলাদেশকে ২৫৫০ কোটি টাকা ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক

বাংলাদেশকে ২৫৫০ কোটি টাকা ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক

তাজা খবর:

দারিদ্র্য দূরীকরণ ও করোনা ঝুঁকি মোকাবিলায় দেশের ২০টি জেলায় দুই হাজার ৫৫০ কোটি টাকা ( ৩০০ মিলিয়ন ডলার, ১ ডলার = ৮৫ টাকা ধরে) ঋণ সহায়তা দেবে বিশ্বব্যাংক। গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক। এতে বলা হয়, গত রোববার চুক্তিটি সই করা হয়। বিশ্বব্যাংকের পক্ষে সংস্থাটির বাংলাদেশ ও ভুটানের কান্ট্রি ডিরেক্টর মের্সি টেম্বন এবং বাংলাদেশের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতেমা ইয়াসমিন এতে সই করেন। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দক্ষতা উন্নয়নে জীবনমান উন্নয়ন ও কর্মক্ষম ব্যক্তি তৈরির লক্ষ্যে রিলায়েন্স, ইন্টারপ্রিনিউরশিপ এন্ড লাইভলিহুড ইম্প্রুভমেন্ট (রেলি) প্রকল্পের আওতায় এই ঋণে তিন হাজার ২০০ গ্রামের সাড়ে সাত লাখ লোক উপকৃত হবে। তিন বছর মেয়াদী এ ঋণের গ্রেস পিরিয়ড পাঁচ বছর। এ ঋণ ব্যবহার করে চার লাখ ৯০ হাজার মানুষকে জলবায়ু ঝুঁকি, অভিযোজন এবং স্থিতিস্থাপকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। পাশাপাশি পাঁচ হাজার ১২০টি জলবায়ু সহনীয় অবকাঠামো নির্মাণ হবে।

এ প্রসঙ্গে মের্সি টেম্বন বলেন, কোভিড -১৯ মহামারিতে গ্রামীণ অঞ্চলের দরিদ্রদের, বিশেষত নারীদের আয় ও অর্থনৈতিক সুযোগ সীমাবদ্ধ হয়েছে। এই প্রকল্প গ্রামীণ অর্থনীতিতে সহায়তা করবে এবং এর ৯০ শতাংশ সুবিধাভোগী হবেন নারীরা। প্রকল্পটি স্বাস্থ্য এবং পুষ্টি সচেতনতায় সহায়তা করবে। বেকার যুবক এবং প্রত্যাবাসিত অভিবাসীদের কর্মসংস্থান বাড়ানোর জন্য এবং দক্ষতা বিকাশের প্রশিক্ষণও সরবরাহ করতে এ প্রকল্প কাজ করবে। সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন বলেন, প্রকল্পটি ৮ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা এবং বাংলাদেশ ডেল্টা পরিকল্পনা ২১০০-এর সঙ্গে সম্পর্কিত। এটি গ্রামীণ নারীদের দারিদ্র দূরীকরণ ও মহামারির ধাক্কা সামাল দিতে সাহায্য করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *