মুজিববর্ষে সহজে আইনি সহায়তা পাবে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধীরা

মুজিববর্ষে সহজে আইনি সহায়তা পাবে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধীরা

নিউজ ডেস্ক:

মুজিববর্ষে দেশের প্রতি থানায় চালু হচ্ছে হেল্প ডেস্ক। এই ডেস্ক থেকে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধীরা সহজে আইনি সহায়তা পাবে। এরই মধ্যে নানা ধরনের প্রস্তুতির কাজও হাতে নেয়া হয়েছে। প্রতিটি ডেস্কে কমপক্ষে একজন নারী পুলিশ কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করবেন। ডেস্কটি এমনভাবে সাজানো হবে, যাতে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধীরা সহজেই তাদের অভিযোগের বিষয়ে মন খুলে কথা বলতে পারে।

এ বিষয়ে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বলেন, এ বছর আমাদের স্লোগান হলো ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার-পুলিশ হবে জনতার’। বিশেষ করে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা ডেস্ক করা হচ্ছে। সেখান থেকে তাদের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সম্প্রতি তাদের মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন। সভায় সভাপতি সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি সুশাসন নিশ্চিত করার জন্য যথাযথভাবে কাজ করার পরামর্শ দেন। ওই সভায় দেশের প্রতিটি থানায় হেল্প ডেস্ক খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়; যেটি ১৭ মার্চ থেকে সারা দেশের থানাগুলোতে চালু হবে। এরই মধ্যে প্রতিটি থানায় বিশেষ সহায়তা ডেস্ক স্থাপনের বিষয় চূড়ান্ত করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে এ ব্যবস্থা বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ পুলিশকে।

পুলিশ সূত্র জানায়, দেশের অনেক নারী নির্যাতনের শিকার হয়ে থাকেন। তারা পারিবারিক, সামাজিক ও নিজ অফিসেও নির্যাতনের শিকার হয়ে থাকেন। সেসব নারী অভিযোগ করার জন্য থানায় যান। কিন্তু সেখানে পুরুষ পুলিশ সদস্যরা অভিযোগ নেয়ার দায়িত্বে থাকায় নারীরা তার নির্যাতনের বিষয়টি খুলে বলতে অনেক ক্ষেত্রেই লজ্জা পান। ফলে মামলা লেখার ক্ষেত্রেও অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বাদ পড়ে যায়। এ কারণে দেশের প্রতিটি থানায় বিশেষ হেল্প ডেস্ক স্থাপন করা হচ্ছে। আলাদা কক্ষে এই ডেস্ক করা হবে, যেখানে দায়িত্ব পালন করবেন একজন নারী পুলিশ কর্মকর্তা। নারী পুলিশ কর্মকর্তা দায়িত্বে থাকলে নির্যাতনের বিষয়ে অভিযোগকারী নারীরা তাদের সব কথা বিস্তারিত জানাতে পারবেন।

ডিআইজি হাবিবুর রহমান জানান, দেশের অনেক থানা আছে, যেগুলোতে নারীদের কাছ থেকে অসংখ্য অভিযোগ আসে। তিনি বলেন, অনেক সময় নারীরা তাদের ব্যক্তিগত অনেক বিষয় নিয়ে অভিযোগ করতে থানায় আসেন। পুরুষ পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে গিয়ে অস্বস্তি বোধ করেন। ফলে নতুন যে ডেস্ক চালু হচ্ছে, তাতে নারীদের বিশেষ সুবিধা হবে।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের ইমেজ বাড়াতে আমরা কাজ করছি। থানা হবে মানুষের আশ্রয়স্থল। ভুক্তভোগীরা সর্বপ্রথম সাহায্যের জন্য থানায় আসেন। থানার অফিসারদের মানসিকতা, আচার-আচরণ ও ব্যবহার সর্বোত্তম হতে হবে। এ জন্য দেশের প্রায় ৭০০ থানার ওসিকে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে ডেকে এনে তাদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেছি এবং তাদের কথা শুনেছি। আমরা জনগণের পুলিশ হতে চাই, মানবিক পুলিশ হতে চাই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *