মুজিববর্ষে ৩ লাখ পারিবারিক সাইলো বিতরণ করবে সরকার

মুজিববর্ষে ৩ লাখ পারিবারিক সাইলো বিতরণ করবে সরকার

ডেস্ক নিউজ:

মুজিববর্ষে দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা বাড়াতে তিন লাখ পারিবারিক সাইলো (মোটকা) তৈরি ও বিতরণ করবে সরকার। এ লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগ। এর আগেও দুর্যোগপ্রবণ ১৯ জেলার ৬৩ উপজেলার ৫ লাখ দরিদ্র পরিবারের মধ্যে মাত্র ৮০ টাকা মূল্যে পারিবারিক সাইলো বিতরণ করেছে সরকার।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের ৬ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঝালকাঠি জেলা সদর, কাঁঠালিয়া ও নলছিটি উপজেলায় পারিবারিক সাইলো বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এছাড়া পাঁচ হাজার মেট্রিক টন ধারণক্ষমতাসম্পন্ন আরও ২০০ সাইলো নির্মাণেরও উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মুজিববর্ষ উপলক্ষে যে সকল উদ্যোগ নিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয় তার মধ্যে ডিজিটাল পদ্ধতিতে খাদ্য মজুত, সংরক্ষণ ও বাজার মনিটরিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে কাজ শুরু হয়েছে। এ লক্ষ্যে খাদ্য অধিদফতরে সাইলো, বিভিন্ন পর্যায়ের দফতরসহ এক হাজার ৬৪০টি স্থাপনায় আইসিটি যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হবে।

সূত্র বলছে, ইতোমধ্যে মাঠপর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ১৫টি স্থাপনায় ডিজিটাল ট্রাক ওয়েট ব্রিজ স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে। আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার প্রকল্পের আওতায় ৬টি বিভাগীয় শহর বরিশাল, খুলনা, সিলেট, রংপুর ও রাজশাহীতে একটি করে মোট ছয়টি ফুড টেস্টিং ল্যাবরেটরি নির্মাণের কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। রাজশাহী ছাড়া অন্য ৫টি বিভাগীয় শহরে এরইমধ্যে এর কাজ শুরু হয়েছে। খাদ্য অধিদফতর পরিচালিত সাইলোগুলোর কার্যকরী ধারণক্ষমতা বজায় রাখার লক্ষ্যে মেরামত ও সংস্কারমূলক উন্নয়ন কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক সারোয়ার মাহমুদ বলেন, সাইলোর কাজ চলছে। প্রজেক্টের একটু মেয়াদ বাড়াতে হবে। তারপরও আশা করি আগামী এক দেড় বছরের মধ্যেই শেষ হবে। আরও ২০০ সাইলো হবে। যেগুলো হবে ৫ হাজার মেট্রিক টন ধারণক্ষমতাসম্পন্ন। মুজিববর্ষকে সামনে রেখেই এর প্রাথমিক কাজ শেষ করতে চাই। এরপর শুরু হবে মূল কাজ।

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে ৫টি বড় সাইলো, ১৩টি সেন্ট্রাল সাইলো (সিএসডি) এবং ৬৩১টি লোকাল সাইলো (এলএসডি) আছে। এসব সাইলো বা খাদ্য গুদামের বর্তমান ধারণক্ষমতা প্রায় ২০ লাখ মেট্রিক টন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *