যারা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে তারাই সহিংসতার ঘটনা ঘটিয়েছে

যারা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে তারাই সহিংসতার ঘটনা ঘটিয়েছে

তাজা খবর:

যারা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে তারাই সহিংসতার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বিকেলে রংপুরের পীরগঞ্জে রামনাথপুর ইউনিয়নের বড়করিমপুর মাঝিপাড়া গ্রামে ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, কুমিল্লা, চাঁদপুর, নোয়াখালী, উলিপুর ও পীরগঞ্জের ঘটনা একই সূত্রে গাঁথা। এসব ঘটনার নেপথ্যে সাম্প্রদায়িক রাজনীতিকদের উসকানি রয়েছে। আমরা প্রত্যেকটি ঘটনা খতিয়ে দেখছি। অপরাধীদের কেউ ছাড় পাবে না। এ দেশে সবার সমান নাগরিক অধিকার রয়েছে।

বিএনপি-জামায়াতের রাজনীতি রাষ্ট্রবিরোধী দাবি করে তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িক রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। সন্ত্রাসের রাজনীতির সঙ্গে আমরা নেই। আমাদের প্রথম পরিচয় আমরা বাঙালি। আর বিএনপির প্রথম পরিচয় ধর্মীয়।

এ সময় সহিংসতা রুখে শান্তি সম্প্রীতি রক্ষায় দলীয় নেতাকর্মীদের সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, কেউ খোঁচা দিলে আওয়ামীলীগ জেগে ওঠে। অস্তিত্বে আঘাত করা হয়েছে। অতন্দ্র প্রহরীর মতো নেতাকর্মীদের পাহারা দিতে হবে। আমরা মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান বুঝি না। সব ধর্মের মানুষ এ দেশের নাগরিক এবং বাঙালি, এটাই আমাদের বড় পরিচয়।

এর আগে মন্ত্রী দলীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার লোকজনের সঙ্গে কথা বলে তাদের খোঁজখবর নেন। পরে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রত্যেককে নগদ ৫ হাজার টাকা ও ২০ কেজি করে চাল সহায়তা দেওয়া হয়।

এ সময় রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দীন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক বাবু তুষার কান্তি মন্ডল, আওয়ামী লীগ নেতা রাশেক রহমানসহ রংপুর জেলা, মহানগর ও পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু, ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার (রাজশাহী রেঞ্জ) সঞ্জিব কুমার ভাটি ও হিন্দু বৌদ্ধ কল্যাণ ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিমচন্দ্র ভৌমিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, গত রোববার (১৭ অক্টোবর) রাতে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে পীরগঞ্জে রামনাথপুর ইউনিয়নে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে উগ্রবাদীরা। এ ঘটনায় পীরগঞ্জ থানায় পুলিশের পক্ষ থেকে দুটি মামলা করা হয়েছে। ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া যুবক পরিতোষ সরকারসহ হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *