যুক্তরাজ্যে ‘মাসিক বিলেত’ ও ‘বিলেত টিভি’র যাত্রা শুরু

যুক্তরাজ্যে ‘মাসিক বিলেত’ ও ‘বিলেত টিভি’র যাত্রা শুরু

তাজা খবর:

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে ১০৬ বছরের বাংলা সংবাদপত্রের পথচলার ইতিহাসে সর্বশেষ সংযোজন ‘মাসিক বিলেত’ ও অনলাইন টেলিভিশন ‘বিলেত টিভি’। শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবে ‘মাসিক বিলেত’ পত্রিকার ভার্চুয়াল উদ্বোধন করেন একুশে গানের রচয়িতা বরেণ্য সাংবাদিক আব্দুল গাফফার চৌধুরী।

এ সময় তিনি প্রকাশনাটির সার্বিক সাফল্য কামনা করে বলেন, বিলেতের লেখাগুলো তরুণ প্রজন্মকে বিশেষভাবে টানবে এবং এর মাধ্যমে তারা দেশ ও বিলেত সম্পর্কে আরও বেশি জানতে আগ্রহী হবে।

‘বিলেত’-র নির্বাহী সম্পাদক এমরান আহমদ সূচনা বক্তব্যে ‘বিলেত মিডিয়া’র অগ্রযাত্রায় কমিউনিটির সহায়তা প্রত্যাশা করেন।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশেষ প্রতিনিধি বিলেত মিডিয়ার ডিরেক্টর আ স ম মাসুম। তিনি ‘মাসিক বিলেত’ ও ‘বিলেত টিভি’র উদ্বোধনী এ আয়োজনে উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, কমিউনিটিকে পাশে নিয়েই পথ চলবে ‘বিলেত’।

সম্পাদক সাঈম চৌধুরীর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করেন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পিকার আহবাব হোসেন, লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ জুবায়ের, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের মিডিয়া অ্যাডভাইজার সৈয়দ মনসুর উদ্দিন।

আরও উপস্থিত ছিলেন এটিএন বাংলার মোস্তাক বাবুল, অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক বাংলাদেশ’র সম্পাদক মোজাম্মেল হক কামাল ও ‘দর্পণ’ সম্পাদক রহমত আলী।

মোড়ক উন্মোচনের পর স্পিকার কাউন্সিলার আহবাব হোসেন আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘বিলেত’ কমিউনিটির একান্ত মুখপত্র হয়ে উঠবে। সংবাদ পরিবেশনের গুণে যুক্তরাজ্যে বাংলা মিডিয়ার জগতে সাময়িকীটি নিজস্ব একটি স্থান করে নিতে পারবে।

সম্পাদক সাঈম চৌধুরী বলেন, বিলেতের অভিবাসী বাঙালিদের জীবনের সুখ-দুঃখ, প্রাপ্তি কিংবা অপ্রাপ্তিকে বিশ্বস্ত বর্ণনায় তুলে ধরবে ‘বিলেত’। সাময়িকীটির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন একদল অভিজ্ঞ সাংবাদিক, যারা নিজেদের মেধা ও দক্ষতায় বিলেতের বাংলা মিডিয়ার অঙ্গনে নিজেদের আলাদা পরিচিতি গড়ে তুলে নিতে সক্ষম হয়েছেন।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে বিলেত টিভির ম্যানেজিং ডিরেক্টর আলাউর রহমান শাহীনের পরিচালনায় ‘বিলেত টিভি’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন খ্যাতিমান সাংবাদিক, একাত্তরের রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু মুসা হাসান। তিনি বলেন, আমি আশা করি ‘বিলেত টিভি’ কিংবা ‘বিলেত’ পত্রিকা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করবে। প্রবাসে মুক্তবুদ্ধির চর্চায় ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

‘বিলেত টিভি’র প্রথম সম্প্রচারে প্রথমবারের মতো প্রকাশ পায় বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী কুমার বিশ্বজিতের একটি গান। সংগীতায়োজনে ছিলেন বিলেত সাময়িকীর বিজনেস এডিটর হাবিবুর রহমান। এছাড়া মরিচ বাগান নিয়ে আলাউর রহমান শাহিনের একটি বিশেষ রিপোর্টও প্রকাশ পায় এ দিন।

কয়েক খণ্ডে বিভক্ত অনুষ্ঠানের একটি পর্বে ম্যানেজিং এডিটর মিজানুর রহমান মীরু জানান, ‘বিলেত টিভি’ কেবল সংবাদ প্রকাশ নয়, কমিউনিটি বিভিন্ন ইভেন্ট সরাসরি সম্প্রচার করবে পাশাপাশি নিয়মিত টক শো আয়োজন করবে।

বিজনেস এডিটর হাবিবুর রহমান তার বক্তব্যে বিলেত মিডিয়ার মাধ্যমে কমিউনিটির ব্যবসা-বাণিজ্যকে বিশেষভাবে প্রমোট করা হবে বলে জানান। সমাপনী বক্তব্যে ক্রিয়েটিভ এডিটর অপু রায় উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে ‘মাসিক বিলেত’ ও ‘বিলেত টিভি’ নিয়ে বহু দূর এগিয়ে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিকসহ কমিউনিটির বিশিষ্টজনরা অংশ নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *