রাজধানীতে ১৬৪৬ বাসের রোড পারমিট নেই

রাজধানীতে ১৬৪৬ বাসের রোড পারমিট নেই

তাজা খবর:

রাজধানীতে ১ হাজার ৬৪৬টি গণপরিবহনের কোনো রোড পারমিটের নেই। এসব গাড়ির চলাচল বন্ধ করতে প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে আগামী দুই মাস অভিযান চলাবে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন।

বৃহস্পতিবার দক্ষিণ সিটির নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৭তম সভা অনুষ্ঠিত শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন মেয়র।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা জানতে পেরেছি রাজধানীতে ১৬৪৬টি বাস চলছে; যাদের কোনো রোড পারমিটের নেই। এই বাসগুলো বন্ধ করতে অভিযান চালানো হবে। যাদের রোড পারমিট নেই তারা ঢাকার কোনো রোডে বাস চালাতে পারবে না। আগামী দুই মাস প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে রোড পারমিটবিহীন গাড়ি বন্ধে অভিযান চালানো হবে।

তিনি বলেন, রাজধানীতে গাড়ি চালাতে হলে আগে রোড পারমিট নিতে হবে, এরপরে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। যারা রোড পারমিটের অনুমতি পাবে তারাই গাড়ি চালাতে পারবে। কিন্তু গাড়ির মালিকরা আগে রেজিস্ট্রেশন করে পরে রোড পারমিটের জন্য আবেদন করে এবং রোড পারমিট পাওয়ার আগেই তারা গাড়ি চালায়; এটা হতে দেওয়া যাবে না।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, আগামী ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ঘাটারচর থেকে মতিঝিল হয়ে সাইনবোর্ড পর্যন্ত বাস রুট রেশনালাইজেশন কার্যক্রম শুরু করতে চাচ্ছি। এটা আমাদের আজকের সভার মুল সিদ্ধান্ত। ঘাটার চড়ে একটি বাস ডিপো নির্মাণের জন্য আমরা একটি জায়গা শনাক্ত করেছি। এরই মধ্যে দুই সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন যাত্রী ছাউনি, বাস ডিপো নির্মাণের জন্য আমরা দরপত্র সম্পন্ন করেছি। এই রুটে চলাচলকারী বাসের মালিক পক্ষের সঙ্গে আমাদের চুক্তির খসড়া প্রণয়ন হয়েছে। সেই চুক্তি ৮ জুলাইয়ের মধ্যে চূড়ান্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। আমরা আশা করছি আগামী ২৯ জুলাই এই চুক্তি সম্পাদন করা হবে।

তিনি বলেন, ঢাকার বাইরে চারটি আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল নির্মাণ করা হবে। আপনারা জানেন ঢাকার বাইরের বাসগুলো ঢাকার ভেতর দিয়ে চলাচল করে। আমরা এটা চাচ্ছি না। ঢাকার চলাচলকারী বাসগুলোই ঢাকার ভেতরে থাকবে। বাহিরের বাসগুলো ঢাকা শহরের বাইরে থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *