রানা প্লাজার স্মৃতিস্তম্ভ রক্ষায় শ্রমিক সমাবেশ

রানা প্লাজার স্মৃতিস্তম্ভ রক্ষায় শ্রমিক সমাবেশ

তাজা খবর:

রানা প্লাজা ধসে ১১শ’র বেশি পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সেই মৃত শ্রমিকদের স্বরণে রানা প্লাজার সামনে একটি স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করেছিলো বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন, নিহত শ্রমিকের স্বজন ও আহত শ্রমিকরা৷ স্মৃতিস্তম্ভটি রক্ষায় প্রতিবাদ-প্রতিরোধ ও সংরক্ষণের দাবি জানিয়েছেন শ্রমিকরা সমাবেশ করেছে।

শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) বিকাল ৪টার দিকে সাভারে বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে পাশে ধসে পড়া রানা প্লাজার সামনে এক সমাবেশের মাধ্যমে এ দাবি প্রায় অর্ধশত পোশাক শ্রমিক ও সংগঠনগুলো।

এসময় শ্রমিক ও শ্রমিক নেতারা জানায়, সাভারে রাস্তার পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে সরকার। এই অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানকে আমরা স্বাগত জানাই। কিন্তু আমরা শুনতে পেলাম রানা প্লাজায় নিহত শ্রমিকদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভ ভেঙ্গে ফেলা হবে। সরকারে এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আর সরকার যদি মনেই করে এই স্মৃতিস্তম্ভ সরানোর দরকার তাহলে রানা প্লাজার ভবনের স্থলে এটাকে স্থাপন করতে পারে তাতে আমাদের কোন আপত্তি নেই। আমরা সরকারের কাছে বার বার দাবী জানিয়ে আসছি রানা প্লাজায় নিহত শ্রমিকদের স্মরণে সরকারি উদ্যোগে স্থায়ী ভাবে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ করার জন্য কিন্তু সরকার তা করছে না ।

রানা প্লাজায় নিহত শ্রমিকদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভ রানা প্লাজার সামনে আছে বলে অন্তত ২৪ এপ্রিল নিহত শ্রমিকদের স্মরণে এখানে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা দিতে পারি এবং রানা প্লাজার স্থানটা এখনো দখল করতে পারেনি।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির তাসলিমা আক্তার লিমা, শাহ আলম,স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের আল কামরান, বাংলাদেশ গার্মেন্টস এন্ড শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের রফিকুল ইসলাম সুজন, ইসমাইল হোসেন ঠান্ডু, বাংলাদেশ জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের আনিসুর রহমান, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের অরবিন্দ বেপারী বিন্দু , গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের কবির হোসেন মনির সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী ও পোশাক শ্রমিকরা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *