শিগগিরই নিয়োগ পাচ্ছেন চার হাজার চিকিৎসক

শিগগিরই নিয়োগ পাচ্ছেন চার হাজার চিকিৎসক

তাজা খবর:

শিগগিরই ৪২তম বিসিএসে চিকিৎসক নিয়োগের চূড়ান্ত সুপারিশ করতে যাচ্ছে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)। চিকিৎসক প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা শেষ হয়েছে। এখন এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে দিন-রাত এমনকি ছুটির দিনেও কাজ করে যাচ্ছে পিএসসি। তবে ফল প্রকাশের দিন-ক্ষণ নির্দিষ্ট করা হয়নি। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই ৪২তম বিসিএসের ফল প্রকাশ হতে পারে বলে পিএসসি সূত্রে জানা গেছে।

মহামারি করোনা সামাল দিতে চিকিৎসক নিয়োগে ৪২তম বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে প্রথমে ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের কথা থাকলেও সরকারের বিশেষ ক্ষমতায় এখান থেকে আরও ২ হাজার অর্থাৎ মোট ৪ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সরকারের ইচ্ছা দ্রুত সময়েই এ চিকিৎসকদের নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে তাদের পদায়ন করা। এ বিষয়েও সরকারের বিভিন্ন দফতর কাজ করে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, করোনার কারণে চিকিৎসক ও নার্স নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আমরা আরও ৪ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিতে যাচ্ছি। খুব দ্রুত এ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।

মহামারি করোনা সামাল দিতে ২ হাজার চিকিৎসককে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দিতে গত বছর ৪২তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি দেয় পিএসসি। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি চিকিৎসক নিয়োগে শুধু এমসিকিউ প্রশ্নে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ৩১ হাজার চিকিৎসক অংশ নেন।

পরীক্ষার এক মাস পর ২৯ মার্চ এই বিসিএসের ফল প্রকাশ করে। এতে উত্তীর্ণ হন ৬ হাজার ২২ জন। করোনার সময় দফায় দফায় পেছানো হয় ৪২তম বিসিএসের ভাইভা। পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও করোনার সময় বিশেষভাবে চিকিৎসক নিয়োগ দিতে কাজ করে পিএসসি। এ সময় লকডাউনে সরকারের কাছে বিশেষ অনুমতি নিয়ে কাজ করে পিএসসি। ৫ মে মৌখিক পরীক্ষা সূচি প্রকাশ করে।

যেখানে পিএসসি জানায়, মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে ২৩ মে। ৩০ জুন পর্যন্ত ৬ হাজার ২২ জনের ভাইভা অনুষ্ঠিত হবে। পরে ১৮ মে বিজ্ঞপ্তিতে পিএসসি জানায়, বর্তমান করোনার পরিস্থিতি বিবেচনায় সরকারি বিধিনিষেধের কারণে ৪২তম বিসিএস (বিশেষ) মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। অল্প সময়ের মধ্যে নতুন তারিখ জানানোর কথা জানিয়েছিল পিএসসি। পরে ৬ জুন আবার ভাইভা শুরু করে পিএসসি। এ পরীক্ষা ১৩ জুলাই পর্যন্ত চলার কথা ছিল। করোনার কারণে সেই ভাইভা স্থগিত করা হলো। এর পরও কয়েকবার করোনায় পিছিয়ে যায় ভাইভা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পিএসসির এক কর্মকর্তা জানান, চিকিৎসকদের নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশের জন্য শেষ সময়ের প্রস্তুতি চলছে। কঠোর লকডাউনের মধ্যেও চিকিৎসকদের ভাইভা নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *