সব ধরনের জমায়েত বন্ধের সুপারিশ জাতীয় কোভিড কমিটির

সব ধরনের জমায়েত বন্ধের সুপারিশ জাতীয় কোভিড কমিটির

তাজা খবর:

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের বিস্তার ঠেকাতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার পাশাপাশি সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় জমায়েত বন্ধের সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের নেওয়া কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে কমিটির ৫০তম সভায়।

শুক্রবার রাতে কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহর পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পাশের দেশ ভারতসহ সারাবিশ্বে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। বাংলাদেশেও সংক্রমণ আবার বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা করছে জাতীয় কমিটি।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সরকারের নেওয়া কর্মসূচি বাস্তবায়নে জোর দিয়ে সেখানে বলা হয়, “প্রয়োজনে কর্মসূচি বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে আইনি ব্যবস্থা, যেমন মোবাইল কোর্ট পরিচালনার পরামর্শ দিয়েছে কমিটি। এছাড়া শতভাগ সঠিকভাবে মাস্ক পরা নিশ্চিত করা, হাত পরিষ্কার রাখা ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য সব ধরনের পদক্ষেপ নিতে হবে।”

“সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের উদ্দেশ্যে সকল সামাজিক (বিয়ের অনুষ্ঠান, মেলা), ধর্মীয় (ওয়াজ মাহ্ফিল) ও রাজনৈতিক সমাবেশ এই সময় বন্ধ করতে হবে।”

এছাড়া সভা বা কর্মশালার ব্যবস্থা অনলাইনে করা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থবিধি নিশ্চিত করা, শিক্ষার্থীসহ সকলকে দ্রুত টিকার আওতায় আনার তাগিদ দিয়েছে জাতীয় কমিটি।

বিশ্ব জুড়ে নতুন করে আতঙ্ক তৈরি করা করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা বাংলাদেশেও বাড়ছে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশে ২০ জনের শরীরে এ ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

দৈনিক নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্ত কোভিড রোগীর হার শুক্রবার ১৫ সপ্তাহ পর আবার ৫ শতাংশের উপরে উঠে গেছে। চার মাসের বেশি সময় পর দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা আবার ১১ শ ছাড়িয়ে গেছে।

ওমিক্রন ঠেকাতে গত মঙ্গলবার সারাদেশে ১৫ দফা নির্দেশনা জারি করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, সেখানেও সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে জনসমাগমে নিরুৎসাহিত করার কথা বলা হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *