সাংবাদিকদের সহায়তার নজীর স্থাপন করেছেন শেখ হাসিনা: তথ্যমন্ত্রী

সাংবাদিকদের সহায়তার নজীর স্থাপন করেছেন শেখ হাসিনা: তথ্যমন্ত্রী

তাজা খবর:

করোনাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সাংবাদিকদের জন্য সহায়তার নজীর স্থাপন করেছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

রোববার বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় পর্যায়ের সহায়তা চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সাংবাদিকদের জন্য সহায়তার নজীর স্থাপন করেছেন যা দেখে অন্য দেশ কিছু কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে এখনো ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কায় কোথাও এমন দৃষ্টান্ত নেই।

আওয়ামী লীগ সরকার সব মত ও পথের মানুষেরই সরকার উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, যেসব সাংবাদিক প্রেসক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সমালোচনায় মুখর থাকেন তাদের জন্যও এ ট্রাস্টের সহায়তা উন্মুক্ত। কারণ রাষ্ট্র সবার জন্য।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, লকডাউন দিলেও বিএনপি সমালোচনা করে, লকডাউন শিথিল করলেও সমালোচনা করে, বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ আসলে কি চান সেটিই বোধগম্য নয়।

তিনি আরো বলেন, অনেক চিন্তাভাবনা করেই ঈদের আগে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন শিথিল করা হয়েছে।যখন দুই সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হলো তখন দেখলাম বিএনপির পক্ষ থেকে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর লকডাউন কেন দেয়া হলো, সেজন্য প্রচন্ড সমালোচনা করলেন। আবার যখন এক সপ্তাহের জন্য শিথিল করা হলো, তখন কেন শিথিল করা হলো সেটির জন্য আবার সমালোচনা করলেন। আসলে উনারা চানটা কি, সেটিই হচ্ছে প্রশ্ন।

আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, আসলে বিএনপির নেতারা চান দেশে একটি বিশৃঙ্খলা তৈরি হোক। তাহলে পানি ঘোলা করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করা যাবে। কিন্তু সেই সুযোগ বিএনপিকে ভবিষ্যতে জনগণ আর দেবে না।

ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাফর ওয়াজেদের সভাপতিত্বে চেক বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, সচিব মো. মকবুল হোসেন।

আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মোল্লা জালাল, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আব্দুল মজিদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *