সাভারের আশুলিয়ায় ডাকাত সদস্যের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান। তাজা খবর

সাভারের আশুলিয়ায় ডাকাত সদস্যের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান। তাজা খবর

তাজা খবর:

পিকনিক শেষে বাড়ি ফেরার পথে সাভারের আশুলিয়ার মরাগাঙ এলাকায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ডাকাতির ঘটনায় সরাসরি জড়িত এক ডাকাত সদস্যকে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের সহায়তায় গ্রেফতার করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। আটকের পর ওই যুবকের কাছ থেকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী গ্রহণ করা হয়েছে।

রবিবার (১ মার্চ) দুপুরে ঢাকার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ওই যুবক ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমদাদুল হক জানিয়েছেন, গ্রেফতারকৃত আসামি ডাকাতির ঘটনায় সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।

আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এর আগে শনিবার রাতে ঢাকার উত্তরা ও কামার পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাত মো. ইয়াছিনকে (২৮) আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, গত ১৯ ফেব্রুয়ারী ধামরাইয়ের আলাদীন পার্কে দিনব্যাপী পিকনিক শেষে নিজস্ব প্রাইভেট কার যোগে স্ত্রী, মেয়ে, ভাগিনাসহ রাজধানীর দক্ষিণ বাড্ডার বাসায় ফেরার পথে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আশুলিয়ার মরাগাঙ এলাকায় ডাকাতির শিকার হন মো. শেখ সোহাগ নামের এক ভুক্তভোগী। এসময় অজ্ঞাত দুষ্কৃতিকারী তাদের প্রাইভেটকারে ইট ছুড়ে মারলে গাড়ির চাকা ব্লাস্ট হয়েছে ভেবে ড্রাইভার দ্রুত গাড়ি থামালে সাথে সাথে অজ্ঞাত দুস্কৃতিকারীরা ছুরা ও ছ্যান নিয়ে গাড়ির চারপাশ ঘিরে ফেলে। একপর্যায়ে দুষ্কৃতিকারীরা গাড়ির সামনের গ্লাস পিটিয়ে ভেঙ্গে ফেলে ভুক্তভোগীর শরীরে আঘাত করে। এসময় তাদের কাছে থাকা মোবাইল সেট, স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নেয় ডাকাত সদস্যরা।

এদিকে এই ঘটনায় আশুলিয়া থানায় দন্ডবিধি ৩৯৪ ধারায় অজ্ঞাতনামা দস্যুদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী মো. শেখ সোহাগ।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমদাদুল হক জানান, গোয়েন্দা পুলিশের সহায়তায় ওই যুবককে আটক করে থানায় এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে এবং আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। এঘটনায় জড়িত বাকী আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *