সাভারে গুঁড়িয়ে দেয়া হলো তিনটি ইটভাটা, ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

সাভারে গুঁড়িয়ে দেয়া হলো তিনটি ইটভাটা, ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

তাজা খবর:

ঢাকার অদূরে সাভারে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা তিনটি ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন পরিবেশ অধিদফতরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় তিনটি ইটভাটার বেশির ভাগ অংশ গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে সাভারের আমিনবাজারের সালেহপুর এলাকায় তিতাস ব্রিকস, মিতালী ব্রিকস ও এমআর ব্রিকস নামে তিনটি ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করেন পরিবেশ অধিদফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাকসুদুল ইসলাম।

এ সময় পরিবেশ অধিদফতরের ঢাকা জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক শাহিদা বেগম ও সহকারী পরিচালক শরিফুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরিবেশ অধিদফতর জানায়, রাজধানীর পাশে আমিন বাজার এলাকাসহ আশপাশের এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা অন্তত ৫০টি অবৈধ ইটভাটায় দীর্ঘদিন ধরে ইট পোড়ানো হচ্ছে। পরিবেশ দূষণ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকাসহ নানা অভিযোগে আজ এসব ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। সকালে প্রথমে আমিনবাজারের সালেহপুর এলাকার তিতাস ব্রিকস ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ইটভাটার মালিককে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। গুঁড়িয়ে দেয়া হয় ইটভাটার বেশির ভাগ অংশ। তবে তাৎক্ষণিক জরিমানার টাকা পরিশোধ করতে না পারায় ভাটার মালিক ফয়সালকে আটক করা হয়। পরে জরিমানা আদায়ের পর তাকে ছেড়ে দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এরপর পার্শ্ববর্তী মেসার্স মিতালী ব্রিকস নামে অপর একটি ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে একই অভিযোগে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে ইটভাটাটির চুল্লির কিছু অংশ গুঁড়িয়ে দেয়া হয়।

পরে এমআর ব্রিকস নামে আরেকটি ইটভাটার ছাড়পত্র ও অনুমোদন-সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পরিবেশ অধিদফতরের কর্মকর্তাদের দেখাতে ব্যর্থ হন ইটভাটাটির মালিকপক্ষ। এ সময় ৫ লাখ টাকা জরিমানা প্রদানসহ ভাটার বেশিরভাগ অংশ গুঁড়িয়ে দেয়া হয়।

পরিবেশ অধিদফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাকছুদুল ইসলাম জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকার চারপাশের বিভিন্ন জেলার অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে অভিযান চলছে। এর অংশ হিসেবে আজ সাভারে অভিযান চালিয়ে অবৈধ এসব ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *