সাভারে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, ৪ প্রতারক গ্রেফতার

সাভারে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, ৪ প্রতারক গ্রেফতার

তাজা খবর:

অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে চাকুরী দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে প্রতারক চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব-৪।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) সকালে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিপিসি-২, র‌্যাব-৪ এর কোম্পানি কমান্ডার এএইচএম আদনান তফাদার। এর আগে মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর সন্নিকটে সাভারের ডগরমোড়া এলাকার মমতাজ ভিলায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- বরগুনা জেলা সদরের পিটিআই সড়কের রাজু আহমেদ জাফরের মেয়ে নুসরাত জাহান সিনথিয়া (২১), ঝিনাইদহ জেলাসদরের মাগুড়াপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল মোতালেব শাহের ছেলে আমিরুল ইসলাম (৪০), জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি থানার ৪ নং ওয়ার্ডের মৃত সাইদুর রহমানের ছেলে ফাহিম রহমান (২২) ও জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ থানার সানন্দাবাড়ি গ্রামের আজমেস আলীর ছেলে দুলাল মিয়া (২৮)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তির তথ্য মতে, সাভারের ওই এলাকায় মমতাজ ভিলা নামের একটি বাড়ির ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে আল হামি প্রাইভেট কোম্পানীর ব্যানারে সিকিরিউটি গার্ড হিসাবে চাকরি দেওয়ার নামে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিতো একটি চক্র। দীর্ঘদিন ধরে এসংক্রান্ত লোভনীয় বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে সাধারন মানুষের অসহায়ত্বের সুযোগ নিতো এই চক্রটি। প্রতারিত হয়ে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ দিলে ওই প্রতারনার কোম্পানিতে অভিযান চালায় র‌্যাব। এসময় উদ্ধার করা হয় একটি ল্যাপটপ, আল-হামী প্রাইভেট কোম্পানি লিমিটেডের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ফরম ৪ টি, এএইচ সিকিউরিটি লিমিটেডের ভর্তি ফরম ৪০টি, আল-হামী প্রাইভেট কোম্পানি লিমিটেডের চাকরির আবেদন ও ভর্তি ফরম ১০টি, যোগদানপত্র ৭ টি, আবেদন পত্র ৩ টি, অঙ্গীকারনামা ৭ টি, মোবাইলফোন, দ্যা কোম্পানিজ অ্যাক্ট ১৯৯৪-০১ সেট একটি, চাকরি প্রত্যশিতদের জীবন বৃত্তান্ত ফরম ৪ টি, রেজিস্ট্রার খাতা ৭ টি, রিসিপশন স্টিকার ১ টি, আল-হামী প্রাইভেট কোম্পানি লিমিটেডের স্টিকার ১ টি, মানি রিসিভ বই ২ টি, মোবাইল ফোন ফোন ৬ টি, একটি লাল রংয়ের টিয়াগো প্রাইভেটকার, একটি সিলভার রংয়ের হিরো হোন্ডা। এসময় গ্রেফতার করা হয় চার প্রতারককে।

সিপিসি-২, র‌্যাব-৪ এর উপ-পরিচালক কোম্পানি কমান্ডার এএইচএম আদনান বলেন, গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করে সাভার থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। কোম্পানিটির বিরুদ্ধে চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে ৫০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *