সাভারে জোড়া খুনের প্রধান আসামী গ্রেপ্তার

সাভারে জোড়া খুনের প্রধান আসামী গ্রেপ্তার

তাজা খবর:

ঢাকা জেলার সাভারে জোড়া খুনের ঘটনায় প্রধান আসামী শাহ জালাল (২৩) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত তার সহযোগীকেও পুলিশ দ্রুত সময়ের গ্রেফতার করতে পারবেন বলে পুলিশ আশাবাদী। সোমবার (১৪ জুন) ভোর রাতে সাভার উপজেলার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঢাকা উত্তর) আব্দুল্লাহীল কাফি। তিনি জানান, সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের হারুরিয়া এলাকায় দুই ভাইকে ছুরিকাঘাতে হত্যার ৪৬ ঘণ্টার মধ্যেই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্‌ঘাটন করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শাহ আলম হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

গ্রেফতার শাহ জালাল (২৩) নিহত রায়হানের আপন ফুপাতো ভাই। তিনি রায়হানদের বাসায় থেকে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন। অপরজন রবিউল, তারা একই প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন।

নিহতরা হল বরিশাল জেলার গৌরনদী থানার পশ্চিম শেওড়া উত্তরপাড়া এলাকার রতনের ছেলে রায়হান (১৭), অপরজন একই এলাকার নেছার মোল্লার ছেলে নাজমুল (১৮)। তারা একে অপরের খালাতো ভাই। এদের মধ্যে রায়হান হেমায়েতপুরের আল-নাছির ল্যাবরেটরি স্কুলের এসএসসি পরিক্ষার্থী। সে উত্তর যাদুরচর এলাকায় বাবা মায়ের সাথে ভাড়া থেকে লেখাপড়া করছিলো। নাজমুল বরিশাল থেকে তার খালার বাসায় বেড়াতে এসেছিল।

পুলিশ জানায়, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রথমে দুই ভাইকে মদ পান করানো হয়। পরে তাদেরকে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরের পাটক্ষেতের মধ্যে নিয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়।

প্রাথমিকভাবে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ২ জনকে সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে শাহ জালাল নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হলেও রবিউল নামে অন্য একজন পলাতক রয়েছে।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহিল কাফি সাংবাদিকদের জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরেই সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের হারুরিয়া এলাকায় দুই ভাইকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়।

এদের মধ্যে নিহত রায়হানের আপন ফুফাতো ভাই হলেন হত্যাকারী শাহ জালাল। তিনি আগে রায়হানদের বাসায় থাকতেন। সে সময়ে বিভিন্ন পারিবারিক কারণে মনোমালিন্য হয় শাহজালাল রায়হানের বাসা থেকে অন্যত্র চলে যান এবং ক্ষোভের কারণেই রায়হানকে হত্যার পরিকল্পনা করেন।

এক পর্যায়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী রায়হান ও তার খালাতো ভাই নাজমুলকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যান শাহজালাল। পরে তার সহকর্মী রবিউলকে সাথে নিয়ে দুই ভাইকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শাহজালালের পরিহিত প্যান্ট এবং হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করেছে।

এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় দুইজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলায় প্রধান আসামি শাহজালালকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া পলাতক রবিউল কে গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার (১১ জুন) সাভারের হেমায়েতপুরে যাদুরচর এলাকার পাট ও ধইঞ্চা খেতে পড়ে থাকা দুই খালাতো ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এদিনই নিহতের বাবা রতন বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *