সাভার থানা পুলিশের আরেকটি মামলা, অমির অফিসে শতাধিক পাসপোর্ট

সাভার থানা পুলিশের আরেকটি মামলা, অমির অফিসে শতাধিক পাসপোর্ট

তাজা খবর:

ঢাকা জেলার সাভার থানা পুলিশ চিত্রনায়িকা পরীমনির মামলায় গ্রেপ্তার তুহিন সিদ্দিকী অমির এক অফিসে শতাধিক পাসপোর্ট পাওয়ায় তার বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করেছে।

সাভার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল হোসেন মঙ্গলবার রাতে ঢাকার দক্ষিণখান থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহিল কাফী বলেন, মঙ্গলবার রাতে উত্তরার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় দক্ষিণখান থানা এলাকায় অমির একটি অফিস থেকে ১০২টি পাসপোর্ট ও ১৭ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। সেখান থেকে পলাশ ও বাছির নামে আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

“পাসপোর্ট হস্তান্তরযোগ্য নয়। আর এতগুলো পাসপোর্ট রাখা অপরাধ। তাই পাসপোর্ট আইনে দক্ষিণখান থানায় মামলাটি করা হয়েছে।”

পরীমনি সোমবার সকালে সাভার থানায় ধর্ষণচেষ্টা, হত্যাচেষ্টা ও মারধরের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন, যেখানে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমির নাম উল্লেখ করে মোট ছয়জনকে আসামি করা হয়।

পরে সেদিন দুপুরে ঢাকার উত্তরার এক নম্বর সেক্টরের একটি বাসা থেকে নাসির ও অমিকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেখান থেকে মদ ও ইয়াবা উদ্ধারের কথাও জানায় গোয়েন্দা পুলিশ।

ওই বাসা থেকে নাসির ও অমির সঙ্গে তিন নারীকেও গ্রেপ্তার করা হয়, যাদের ‘যৌন কাজে’ সেখানে রাখা হয়েছিল বলে পুলিশের ভাষ্য।

পরে সোমবার মধ্যরাতে বিমানবন্দর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের গুলশান বিভাগের এসআই মানিক কুমার শিকদার।

ওই মামলায় মঙ্গলবার পাঁচজনকে আদালতে হাজির করা হলে বিচারক নাসির ও অমিকে সাত দিন করে এবং বাকি তিন নারীকে তিন দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন।

উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য (বিনোদন ও সংস্কৃতি)। আরেক আসামি তুহিন সিদ্দিকী অমিও ওই ক্লাবের সদস্য ছিলেন। তিনি ‘সিঙ্গাপুর ট্রেইনিং সেন্টার’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন। তাদের দুজনকে ইতোমধ্যে ক্লাব থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

পরীমনি তার মামলায় অভিযোগ করেছেন, পূর্ব পরিচিত অমি গত ৮ জুন রাতে তাকে ‘পরিকল্পিতভাবে’ বোট ক্লাবে নিয়ে যান এবং সেখানে নাসির তাকে ‘ধর্ষণের চেষ্টা’ করেন।

সাভার থানায় পরীমনির করা ওই মামলাতেও নাসির ও অমিকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হবে বলে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহিল কাফি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *