২০২১ সালে দেশে ফাইভ-জি চালু

২০২১ সালে দেশে ফাইভ-জি চালু

২০২১ সালে দেশে ফাইভ-জি চালুর লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ইতিমধ্যে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র গঠিত কমিটি প্রাথমিক রূপরেখা তৈরি করেছে। গত ১০ অক্টোবর কমিটি এই প্রাথমিক রূপরেখা ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে পাঠিয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

সূত্র জানায়, রূপরেখা তৈরির পুরো প্রক্রিয়া সম্পাদন করতে কমিটিকে ২০২০ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে কমিটি একটি চূড়ান্ত রূপরেখা তৈরি করবে। তার আগে তৈরি হবে খসড়া রূপরেখা।

এ বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা ২০২১ সালের মধ্যে ফাইভ-জি চালু করব। এরপর রূপরেখা অনুযায়ী তা সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়া হবে। যে প্রাথমিক রূপরেখা তৈরি হয়েছে, তাতে ফাইভ-জি আগে ঢাকায় শুরু হবে, ২০২৩ সালের মধ্যে বিভাগীয় শহরে এবং ২০২৬ সালের মধ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে পৌঁছে যাবে।

তিনি বলেন, এটি একটি টোটাল ইকোসিস্টেম। এই ইকোসিস্টেম আগে তৈরি করতে হবে। রূপরেখায় এর সবই থাকবে।

প্রসঙ্গত, বিটিআরসির ২২৯তম কমিশন সভার সিদ্ধান্ত-৫ অনুযায়ী বাংলাদেশে ফাইভ-জি প্রযুক্তি প্রবর্তনের লক্ষ্যে একটি রূপরেখা তৈরির জন্য ১৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। বিটিআরসির স্পেক্ট্রাম বিভাগের কমিশনারকে আহ্বায়ক ও একই বিভাগের উপ-পরিচালককে সদস্য সচিব করে কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি ফাইভ-জি প্রবর্তনের রূপরেখা, সম্ভাব্য তরঙ্গ, সম্ভাব্য তরঙ্গমূল্য এবং বাস্তবায়নের সময়কাল উল্লেখ করে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাবনা তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই সিদ্ধান্তের আলোকে প্রাথমিক রূপরেখা তৈরি করা হয়। এরই মধ্যে কমিটি একাধিক সভা করেছে। পরবর্তী সভা আগামী ১১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *