৩০টি অক্সিজেন জেনারেটর কেনার প্রস্তাব অনুমোদন

৩০টি অক্সিজেন জেনারেটর কেনার প্রস্তাব অনুমোদন

তাজা খবর:

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে জরুরি ভিত্তিতে হাসপাতালের চাহিদা মেটাতে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ৩০টি অক্সিজেন জেনারেটর কেনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

বুধবার অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের এই প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন পায়।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সামসুল আরেফিন পরে সাংবাদিকদের বলেন, এডিবির অর্থায়নে ‘কোভিড রেসপন্স ইমার্জেন্সি অ্যাসিসটেন্সের’ আওতায় এই ৩০টি অক্সিজেন জেনারেটর কেনা হবে। দাম কত হবে, এগুলো কোথায় বসবে, তা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় পরে ঠিক করবে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অনেকের স্বাসকষ্ট দেখা দেয় বলে অক্সিজেন প্রয়োজন হয়। সে কারণে মহামারীতে দেশে অক্সিজেনের চাহিদাও বেড়েছে।

দেশের হাসপাতালে স্বাভাবিক সময়ে ১০০-১২০ টনের মতো অক্সিজেনের চাহিদা থাকে। ওই চাহিদা পূরণ হয় দেশের উৎপাদনেই।

চলতি বছর সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাক্কায় অক্সিজেনের দৈনিক চাহিদা দশ টন ছাড়িয়ে যায়। তবে তা বড় ধরনের সঙ্কটের পর্যায়ে যায়নি।

কিন্তু পাশের দেশ ভারতে অক্সিজেনের ব্যাপক সঙ্কটে বহু মানুষের মৃত্যুর পর তারা রপ্তানি বন্ধ রাখে বেশ কিছুদিন। এখন আবার ভারত থেকে অক্সিজেন আমদানি হচ্ছে। বাংলাদেশের মোট চাহিদার ২০ শতাংশ অক্সিজেন আগে ভারত থেকেই আমদানি করা হত।

এই প্রেক্ষাপটে বড় ধরনের সঙ্কট এড়াতে দেশে অক্সিজেনের মজুদ ও উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানোর ওপর জোর দিয়ে আসছিলেন বিশেষজ্ঞরা।

ভারত থেকে আসবে চাল

বুধবার সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে ২০২১-২২ অর্থ বছরের জন্য ৫০ হাজার টন নন-বাসমতি সিদ্ধ চাল কেনার প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়।

ভারতের বাগাদিয়া ব্রাদার্স লিমিটেড থেকে ১৬০ কোটি ২২ লাখ ১১ হাজার ২০০ টাকায় এই চাল কেনা হবে। প্রতি মেট্রিক টন ৩৭৭ দশমিক ৮৮ ডলার হিসাবে প্রতি কেজি চালের দাম পড়ছে ৩২ টাকার কিছু বেশি। (ডলারের বিনিময় হার ৮৪ দশমিক ৮০ টাকা ধরে)।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবে ৩২০ কোটি ২৩ লাখ ৪৯ হাজার ৪০ টাকা ব্যয়ে নারায়ণগঞ্জে একটি স্টিল সাইলো তৈরির প্রস্তাবও এদিন বৈঠকে পাস হয়েছে।

ধান-চাল সংরক্ষণ ও মজুদ বাড়াতে সারাদেশে এ ধরনের স্টিল সাইলো তৈরির কাজে বিশেষ নজর দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

বৈঠকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড- কাফকোর কাছ থেকে ১১১ কোটি ৫৯ লাখ ২৪ হাজার ৪৩৭ টাকায় ৩০ হাজার টন ‘ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া’ সার কেনা এবং অন্য একটি প্রতিষ্ঠান থেকে ৫৭ কোটি ৩৩ লাখ ৯৫ হাজার ৫১০ টাকায় ১০ হাজার টন ফসফরিক এসিড কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে মিরপুরের পাইকপাড়ায় সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য বহুতল ভবন নির্মাণের চারটি পৃথক প্রস্তাব এদিন বৈঠকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *